• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: এপ্রিল ১১, ২০১৯, ০৫:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৩, ২০১৯, ০৮:৪৫ পিএম

লেখা ও ছবি

নান্দনিক সব পণ্যের পসরা

-
নান্দনিক সব পণ্যের পসরা
আলপনা আঁকায় ব্যস্ত এক শিল্পী -ছবি : কাশেম হারুন

কড়া নাড়ছে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। রোববার বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ এর প্রথম দিন। এদিন শহর ও গ্রামে বসবে লোকজ মেলা। এ মেলার অন্যতম আকর্ষণ মৃৎশিল্প। কালের পরিক্রমায় আধুনিক প্রযুক্তির কল্যাণে বৈচিত্র্য এসেছে। তারপরেও হারিয়ে যায়নি মৃৎশিল্পের ঐতিহ্য। রাজধানীর দোয়েল চত্বর, ধানমণ্ডি, কলাবাগান এলাকায় হর-হামেশা দেখা যায় মৃৎশিল্পের নানা পসরা। তবে বৈশাখ উপলক্ষে মৃৎশিল্পীদের ব্যস্ততা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। এবারও তার ব্যতয় হয়নি। এখন ব্যস্ত সময় পাড় করছেন মৃৎশিল্পীরা মাটির পাত্রে নান্দনিক রঙের ছোঁয়া দিতে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন, শিশু একাডেমীর কোল ঘেঁষে দোয়েল চত্বর এলাকায় মাটির তৈরি নান্দনিক পণ্যের পসরা সাজিয়েছেন দোকানিরা। বাহারি এ সব পণ্য পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে গ্রামাঞ্চল থেকে নিয়ে এসেছেন ব্যবসায়ীরা। তাদের বিক্রি যেমন চলছে, তেমনি মাটির তৈরি অনেক পণ্যে কারুকাজ নিয়েও ব্যস্ত দোকানিরা। তারা যেমন মাটির তৈরি পণ্যের মজুদ বাড়াচ্ছেন, সেই সঙ্গে বাড়ছে ক্রেতাদের আনাগোনা। মাটির তৈরি জিনিসপত্রের পাশাপাশি পাওয়া যাচ্ছে কাঠ, বেত, লোহা, শোলা, বাঁশের তৈজসপত্র।

 ......................

লেখা ও ছবি  কাশেম হারুন 

কেএইচ/এসএমএম