• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১, ০১:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১, ০১:২৩ পিএম

প্রেসক্লাবে ইনিয়েবিনিয়ে দু-চার কথা বললেই প্রতিবাদ করা হয় না

প্রেসক্লাবে ইনিয়েবিনিয়ে দু-চার কথা বললেই প্রতিবাদ করা হয় না

সংবাদকর্মীরা যদি না চাইতেন, তাহলে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন হতো না। প্রেসক্লাবে ইনিয়েবিনিয়ে দু-চার কথা বললেই প্রতিবাদ করা হয় না। সবাই যদি এককাট্টা হয়ে ধর্মঘটে নামতেন, যদি এক সপ্তাহ পত্রিকা না বের হতো, যদি টিভি চ্যানেলগুলো বন্ধ থাকত, তাহলে একটু চাপ তৈরি হতো। কিন্তু তারা তা করেননি।

এ জন্যই যখন শুনি সংবাদকর্মীকে মালিক বরখাস্ত করছেন, ওয়েজ বোর্ড নিয়ে গড়িমসি হচ্ছে, তখন আমার মধ্যে  অতটা সহানুভূতি জাগে না।

গণমাধ্যমে নিজেদের ঢোল পেটানোর জন্য পাকিস্তানের শাসকরা প্রেস ট্রাস্ট তৈরি করেছিল। কিন্তু তারা বশংবদ সাংবাদিক ইউনিয়ন তৈরি করতে পারেনি।

একটা সময় ছিল, যখন ছাত্রনেতা আর সাংবাদিক পরিচয় পেলে মানুষ শ্রদ্ধাবনত হতো। আর এখন?