• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুলাই ৪, ২০১৯, ০৯:১২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৪, ২০১৯, ০৯:১২ এএম

ঢামেকে প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

জাগরণ প্রতিবেদক
ঢামেকে প্রসূতির মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন


ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) প্রসূতি ওয়ার্ডে চিকিৎসার অবহেলায় ঊর্মি আক্তার নামে অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর মৃত্যুর ঘটনায় ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি রোগীর মৃত্যুর এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে রোগীর স্বজনদের সঙ্গে হাসপাতালের কর্মচারীদের ব্যাপক হট্টগোল ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। 

ঊর্মির দেবর ইমন হোসেন জানান, তাদের বাসা কামরাঙ্গীরচর মাদবর বাজার এলাকায়। গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে পেটে ব্যথা অনুভব হওয়ায় তার ভাবীকে প্রথমে মোহাম্মদপুরে শিকদার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। এরপর সেখানে এক ঘণ্টা চিকিৎসা শেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। 

গতকাল বুধবার সকালে ঢামেকের ২১২ নম্বর গাইনি ওয়ার্ডে তার ভাবী উর্মি মারা যান। দেড় বছর আগে তার ভাই জাকির হোসেনের সঙ্গে ঊর্মির বিয়ে হয়। ঊর্মি ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

ইমন অভিযোগ করে বলেন, ঢামেকের জরুরি বিভাগ থেকে ২১২ গাইনি ওয়ার্ডে ভাবীকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পেটের ব্যথা বাড়তে থাকে। সারারাত ভাবী ব্যথায় ছটফট করতে থাকেন। বারবার চিকিৎসকদের অনুরোধ করা হয়, রোগীর অস্ত্রোপচার করুন। কিন্তু চিকিৎসকরা বলেন, অস্ত্রোপচার লাগবে না। নরমাল ডেলিভারি হবে। ইমন অভিযোগ করে আরও বলেন, চিকিৎসকদেন অবহেলার কারণে তার ভাবী ঊর্মির মৃত্যু ঘটেছে। 

এ বিষয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনালের এ এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে ঊর্মি নামে এক অন্তঃসত্ত্বা নারীর মৃত্যু নিয়ে কিছুটা হট্টগোল হয়েছে। আমি সেখানে নিজেই ছুটি গিয়েছি এবং স্বজনদের বক্তব্য শুনে সান্ত্বনা দিয়েছি। তারা আমার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সাঈদা আনোয়ারকে প্রধান করে ছয় সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসে রিপোর্ট পেশ করতে বলা হয়েছে। তদন্তে চিকিৎসকদের অবহেলা প্রমাণ হলে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এইচএম/আরআই

Islami Bank
ASUS GLOBAL BRAND