• ঢাকা
  • সোমবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: আগস্ট ১১, ২০১৯, ০৬:০৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১১, ২০১৯, ০৬:০৬ পিএম

ডেঙ্গু পরিস্থিতি

আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার অতিক্রম, মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে

জাগরণ প্রতিবেদক
আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার অতিক্রম, মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে
রাজধানীর একটি সরকারি হাসপাতালের চিত্র

ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ক্রমান্বয় বৃদ্ধি পাচ্ছে। রোববার (১১ আগস্ট) পর্যন্ত সরকারি হিসেবে মৃতের সংখ্যা ৪০জন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ৬জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৩৩জন এবং ঢাকার বাইরে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। একইসঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪০ হাজার অতিক্রম করেছে।

১০ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে ১১ আগস্ট সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২ হাজার ৩৩৪ জন ডেঙ্গুরোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

এর আগে ৯ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২১৭৬ জন, ৮ আগস্ট সকাল ৮টা পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২০০২ জন, ৭ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২৩২৬জন, ৬ আগস্ট সকাল ৮টা পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২৪২৮জন, ৫ আগস্ট সকাল ৮টা পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২৩৪৮জন, গত ৪ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ২০৬৫জন, ৩ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ১৮৭০জন, ২ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ১৬৪৯জন, ১ আগস্ট সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬৩ জেলায় (রাজশাহী ছাড়া) ১৬৮৭জন, ৩১ জুলাই সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ১৭১২জন, ৩০ জুলাই সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৪৭৭ জন, ২৯ জুলাই সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরসহ দেশের ৬০টি জেলার হাসপাতালগুলোতে ১ হাজার ৩৫ জন,  ২৮ জুলাই সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় ৫০ জেলায় ১ হাজার ৯৬ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরাধীন হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন্স সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম জানায়, নতুন আক্রান্ত ২৩৩৪ জন নিয়ে এ বছর (১১ আগস্ট পর্যন্ত) সারাদেশে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে গিয়ে দাঁড়ালো ৪১ হাজার ১৭৮ জনে। এর মধ্যে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৮ হাজার ৭৫৪জন।

প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে, নতুন আক্রান্ত ২৩৩৪ জনের মধ্যে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৭৪ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ৪৯ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ৩৭ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫৬ জন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২১ জন, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ১৯ জন, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২৫ জন, পিলখানাস্থ বিজিবি হাসপাতালে ৫ জন, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ১২জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ৮৮ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

অন্যদিকে, ওই ২৪ ঘণ্টায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৩৫জন, বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৬ জন, বারডেম হাসপাতালে ১৭জন, ইবনে সিনা হাসপাতালে ৫ জন, স্কয়ার হাসপাতালে ২১ জন, ধানমণ্ডির কমফোর্ট নার্সিংয়ে ৪জন, শমরিতা হাসপাতালে ৩জন, ডেল্টা মেডিকেল কলেজে ৭জন, ল্যাবএইডে ৪ জন, সেন্ট্রাল হাসপাতালে ২৭ জন, হাই কেয়ার হাসপাতালে ১ জন, হেলথ অ্যান্ড হোপে ৩জন, গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৩ জন, ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ৩২ জন, ইউনাইটেড হাসপাতালে ১৪ জন, খিদমাহ হাসপাতালে ৮ জন, সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৮জন, অ্যাপোলো হাসপাতালে ১০জন, আদ-দ্বীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৯জন, ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২ জন, বিআরবি হাসপাতালে ৬ জন, আজগর আলী হাসপাতালে ১৯জন, বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ৯ জন, উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৯জন, সালাউদ্দিন হাসপাতালে ১৬ জন, পপুলার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২০ জন, উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৪জন, আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৯ এবং কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ৪জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন বলে দৈনিক জাগরণকে জানান হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন্স সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ও চিকিৎসক আয়েশা আক্তার।

গত ২৪ ঘণ্টাতেই ঢাকা বিভাগে (শহর ব্যতীত) ২৭৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ২২৬ জন, খুলনা বিভাগে ১২৬ জন, রংপুর বিভাগে ৭১ জন, রাজশাহী বিভাগে ১১৪ জন, বরিশাল বিভাগে ১৭৮ জন, সিলেট বিভাগে ৩২ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৮৭ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন।

বর্তমানে ৪০৮৩ জন ঢাকার বাইরে স্থানীয় সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আরএম/এসএমএম

আরও পড়ুন

Islami Bank
ASUS GLOBAL BRAND