• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ৩, ২০২০, ১০:৩৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ৩, ২০২০, ১০:৩৮ পিএম

বিভিন্ন হাসতালে সাধারণ চিকিৎসা

আউটডোর খোলা, রোগীও আছে, নেই শুধু চিকিৎসক

জাগরণ ডেস্ক
আউটডোর খোলা, রোগীও আছে, নেই শুধু চিকিৎসক
ইবনে সিনা হাসপাতাল ● সংগৃহীত

সরকারের নির্দেশনা থাকলেও সাধারষ রোগীদের সেবা মিলছে না হাসপাতালে। এমনকি অনেক হাসপাতালের হটলাইন নম্বরেও সাড়া মিলছে না। দু’একটি হাসপাতালের আউটডোর সেবা খোলা থাকলেও নেই চিকিৎসক। এমন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের।

কোভিড-১৯ এর আতঙ্কে ফাঁকা ঢাকা। বন্ধ বেশিরভাগ বেসরকারি হাসপাতালের আউটডোর সেবা। কোভিড আতঙ্কে আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতাল, বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতাল, ডেল্টা, ইউনিভার্সেল মেডিকেল বা পপুলারের মতো হাসপাতালে এসেও হতাশ রোগী। ডাক্তার নেই, বন্ধ চেম্বারও।

যেসব চিকিৎসকরা এই সঙ্কটময় সময়ে চেম্বারে বসছেন না বা চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া কথা বলছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, দেশে এখন সঙ্কটময় সময় চলছে। এই দুর্যোগের দিনে যেসব চিকিৎসকরা চেম্বারে বসছেন না এবং চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন না, তারা কাজটা ঠিক করছেন না। তবে এমন আচরণ থেকে তাদের বের হয়ে আসার আহ্বান করছি। আর যারা সেবা দেবেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আউটডোর সেবা সীমিত আকারে চালু রাখা হয়েছে বলে দাবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। পাশাপাকশি দ্রুতই এই সঙ্কট থেকে উত্তরণের আশা কর্তৃপক্ষের।

পপুলার হাসপাতালের জেনারেল ম্যানেজার সুকুমার চন্দ্র সাহা বলেন, এ হাসপাতালের আউটডোর সেবা সীমিত আকারে চালু রাখা হয়েছে। দেশে কোভিড আতঙ্কে যে পরিস্থিতি তার কারণেই মূলত এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তবে অতি দ্রুত এই সঙ্কট থেকে উত্তরণ হবে বলে আশা করছি।

আতঙ্কিত না হয়ে সাধারণ রোগীদের সঙ্গে মানবিক আচরণের আহ্বান জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

এসএমএম