• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট, ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭
প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২০, ০১:১৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৫, ২০২০, ০১:১৫ এএম

চলতি বছরেই করোনার ১০ কোটি ভ্যাকসিন!

জাগরণ ডেস্ক
চলতি বছরেই করোনার ১০ কোটি ভ্যাকসিন!
প্রতীকী ছবি

করোনভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবেলায় বিশ্বের শতাধিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা করছে। এর মধ্যে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন এগিয়ে আছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছিল। তবে এর মধ্যেই জার্মানির ‘বায়নটেক’ ও ‘কিওরভ্যাক’ কোম্পানি করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারে অনেক দূর এগিয়েছে। এ নিয়ে দেখা দিয়েছে আশার আলো।

জার্মানির বায়নটেক কোম্পানি এরই মধ্যে ২৪ জন মানুষের শরীরে টিকা দিয়ে সফলতা পেয়েছে। কোম্পানিটি আশা করছে এ মাসের শেষের দিকে তারা ৩০ হাজার মানুষের মধ্যে পরীক্ষা করতে পারবে। এটা সফল হলে চলতি বছরের শেষে তারা ১০ কোটি ভ্যাকসিন উৎপাদন করবে। তবে এর আগে সবাইকে ছাড়িয়ে করোনার ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে চীন।

গত ২৯ জুন ইয়াহু নিউজ এর খবরে বলা হয়, দেশটির সেনাবাহিনীর গবেষণা শাখা এবং স্যানসিনো বায়োলজিকসের (৬১৮৫.এইচকে) তৈরি একটি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন মানব শরীরে প্রয়োগের অনুমতি পেয়েছে। তবে আপাতত ভ্যাকসিন শুধু সেনাবাহিনীর মধ্যে ব্যবহার করা হবে।

স্যানসিনো বলেছে, চীনের সেন্ট্রাল মিলিটারি কমিশন গত ২৫ জুন এডি৫-এনকোভ ভ্যাকসিনটি সৈন্যদের দেহে এক বছরের জন্য প্রয়োগের অনুমোদন দিয়েছে। স্যানসিনো বায়োলজিকস এবং একাডেমি অব মিলিটারির একটি গবেষণা ইনস্টিটিউট যৌথভাবে ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, সোমবার (৩০ জুন) স্যানসিনো বায়োলজিকস এক বিবৃতিতে জানায়, ভ্যাকসিনটি চীনের বাইরেও পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হচ্ছে। এরই মধ্যে কানাডায় পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমোদনে দেয়া হয়েছে। তবে চীনের লজিস্টিক সাপোর্ট বিভাগের অনুমোদনের আগে এটি ব্যাপকভাবে সাধারণ মানুষের শরীরে প্রয়োগ করা হবে না।

কেএপি

আরও পড়ুন