• ঢাকা
  • বুধবার, ০৩ মার্চ, ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১, ০৩:১৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১, ০৩:৩২ পিএম

চশমায় কমবে করোনার ঝুঁকি

চশমায় কমবে করোনার ঝুঁকি

করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। সংক্রমণ এড়াতে মাস্কের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি আরো একটি গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলছেন, চশমা পরলেও করোনা সংক্রমণ থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

সম্প্রতি ভারতে প্রকাশিত নতুন একটি গবেষণায় উঠে এসেছে, যারা চশমা পরেন, তাদের এই ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা ৩ গুণ কমে যায়। বিজ্ঞানীদের দাবি, এটি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ‘পরিসংখ্যানগতভাব তাৎপর্যপূর্ণ’।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি হয় দরিদ্র ও নিরক্ষর মানুষদের। কারণ তারা  প্রতিরোধমূলক নির্দেশিকা সঠিকভাবে মেনে চলেন না এবং শিক্ষিতদের তুলনায় তাদের চশমা পরার অভ্যাসও কম বলে দাবি গবেষকদের।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, মুখ, নাক, চোখে স্পর্শের মাধ্যমে করোনার সংক্রমণ ঘটে থাকে। মাস্ক পরলে হাত দিয়ে নাক ও মুখ স্পর্শ করা অনেকটাই কমে যায়। কিন্তু তা চোখকে আড়াল করতে পারে না।

গবেষকরা বলেছেন, চোখে হাত দেওয়া বা চোখ কচলানো সংক্রমণের একটা বড় কারণ। সারা দিনে একজন নিজের মুখ গড়ে ২৩ বার স্পর্শ করেন। আর চোখে প্রতি ঘণ্টায় গড়ে ৩ বার হাত দেন।

গবেষণায় ৩০৪ জন কোভিড আক্রান্ত রোগীকে বেছে নেওয়া হয়। প্রশ্নের মাধ্যমে তাদের চশমা ধারণ নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। এ পর্যালোচনার সঙ্গে সাধারণদের ওপর গবেষণা থেকে প্রাপ্ত তথ্যের তুলনামূলক বিশ্লেষণ করা হয়।

গবেষণার ফলাফল বিশ্লেষণে বলা হয়, সারা দিনের একটা বড় সময় চশমা পরে থাকলে তাদের সংক্রমণের আশঙ্কা দুই থেকে তিন গুণ কমে যায়।

এ জন্য সংক্রমণ থেকে স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষিত রাখতে ফেসশিল্ড ও গগলস পরার ওপর নির্দেশনা দেন গবেষকরা।

সূত্র: এবিপি নিউজ