• ঢাকা
  • রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ৩, ২০২১, ০৫:০৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১২, ২০২১, ১২:৪৯ পিএম

এক চামচ চিয়া সিড, কেন খাবেন?

এক চামচ চিয়া সিড, কেন খাবেন?

আজকাল আমরা সকলেই এমন সব খাবারের সন্ধানে থাকি যা আমাদের শরীরের বিভিন্ন চাহিদা মেটাতে সক্ষম। যা আমাদের শরীরকে রাখবে সুস্থ ও সবল। হয়ে উঠবে রোগ প্রতিরোধের জাদুকরী উপাদান।

চিয়া সিড তেমনি একটি সুপার ফুড। করোনার সময়ে সবাই যখন স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন তখন প্রতিদিন এক চামচ চিয়া সিড হতে পারে এর একটি উপযুক্ত সমাধান।

মরুভূমিতে জন্মানো সালভিয়া হিসপানিকা (Salvia Hispanica) উদ্ভিদের বীজ হচ্ছে চিয়া সিড বা বীজ। যার আদি জন্মস্থান সেন্ট্রাল আমেরিকা। সেখানকার প্রাচীন আদিবাসী অ্যাজটেক জাতির খাদ্য তালিকায় থাকা চিয়া সিডকে তারা সোনার থেকেও মূল্যবান মনে করতেন। তারা বিশ্বাস করতেন এটা তাদের শক্তি ও সাহস জোগাবে।

সব ধরনের আবহাওয়ায় জন্মানো চিয়া সিড দেখতে সাদা ও কালো রঙের তিলের মতো ছোট সাইজের হয়ে থাকে। অনেকেই চিয়া সিডকে তোকমা বলে ভুল করে থাকে। দেখতে প্রায় একই রকম হলেও জন্মস্থান, পুষ্টিগুণ ও স্বাস্থ্যগত দিক থেকে রয়েছে কিছু পার্থক্য। 

সুপার ফুড হিসেবে খ্যাত চিয়া সিডে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড, কোয়েরসেটিন, কেম্পফেরল, ক্লোরোজেনিক এসিড এবং ক্যাফিক এসিড নামক এন্টিঅক্সিডেন্ট, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, দ্রবনীয় এবং অদ্রবণীয় আঁশ।

চিয়া সিডের পুষ্টিগুণ
আপনি জানেন কি পুষ্টিগুণে ঠাসা চিয়া সিডে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালশিয়াম, ভিটামিন সি, আয়রণ, পটাশিয়াম, ওমেগা ৩, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এক আউন্স বা ২৮.৩৫ গ্রাম চিয়া বীজে রয়েছে প্রায় ৬ গ্রাম প্রোটিন, ৮.৫ গ্রাম ফ্যাট, ১১ গ্রাম ফাইবার, ১৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট (যার মধ্যে ১১ গ্রাম হল ফাইবার)। দৈনিক এক আউন্স চিয়া বীজ খেলে ১৮% ক্যালশিয়ামের চাহিদা, ২৭% ফসফরাসের চাহিদা এবং ৩০% ম্যাঙ্গানিজের চাহিদা পূরণ হতে পারে।

চিয়া বীজের ব্যবহার
বর্তমানে চিয়া সিড শুধু ওজন কমানোর জন্য বা ডায়েটের জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে না। নিরপেক্ষ স্বাদের কারণে চিয়া সিড সব ধরনের খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়ার উপযুক্ত। ফলের স্মুদি হোক বা জুস, মিশিয়ে খেয়ে নিতে পারেন শুধু পানির সাথেও। আর বেক করা খাবার, স্যুপ বা সালাদতো রয়েছেই। 

সুপার চিয়া সিডের উপকারিতা
•    চিয়া সিড শক্তি ও কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে
•    রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আরো শক্তিশালী করে 
•    ওজন কমাতে সহায়তা করে 
•    ব্লাড সুগার স্বাভাবিক রাখে, ফলে ডায়বেটিকস হবার ঝুঁকি কমায়
•    হাড়ের স্বাস্থ্য রক্ষায় বিশেষ উপকারি
•    প্রচুর পরিমানে ফাইবার সমৃদ্ধ চিয়া সিড মলাশয় পরিষ্কার রাখে ফলে কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়
•    চিয়া সিডে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট  শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়
•    চিয়া সিড প্রদাহজনিত সমস্যা দূর করে 
•    চিয়া সিডে থাকা অ্যামিনো এসিড ভালো ঘুম হতে সাহায্য করে 
•    চিয়া বীজ ক্যান্সার রোধ করে
•    চিয়া সিড শরীরের শর্করার মাত্রা কমিয়ে হজমে সহায়তা করে
•    এতে থাকা উচ্চমাত্রার ক্যালশিয়াম হাঁটু ও জয়েন্টের ব্যাথা দূর করে
•    চিয়া সিড এটেনশন ডেফিসিট হাইপার এক্টিভিটি ডিসর্ডার দূর করে 
•    চিয়া সিডে রয়েছে প্রচুর পরিমানে আয়রণ, প্রোটিন ও ভিটামিন ’কে’। ফলে ত্বক, চুল ও নখ সুন্দর রাখতে সহায়তা করে।
•    প্রচুর মাত্রায় ওমেগা ৩ থাকার কারণে আমাদের শরীরের কোলেস্টরল কে কমিয়ে আনতে সহায়ক।