• ঢাকা
  • বুধবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২১, ১২:১৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ২৩, ২০২১, ০৬:১৮ এএম

ঢাকার দুই সিটির সব ওয়ার্ডে টিকাদান কর্মসূচি শুরু

ঢাকার দুই সিটির সব ওয়ার্ডে টিকাদান কর্মসূচি শুরু
প্রতীকী ছবি

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সব ওয়ার্ডে মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) থেকে শুরু হয়েছে করোনার টিকাদান কর্মসূচি।

ঢাকার দুই সিটির নিম্ন আয়ের এলাকাগুলোতে এই টিকা কার্যক্রম চলছে। 

বিশেষ এই কর্মসূচিতে যাদের নিবন্ধন করা আছে, তাদের পাশাপাশি নিবন্ধন করেননি এমন ব্যক্তিরাও টিকা নিতে পারবেন। জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্মনিবন্ধন কার্ড দেখিয়ে টিকা নিতে পারবেন। এই দুটির কোনওটিই না থাকলে, কাউন্সিলরের কাছ থেকে নেয়া সার্টিফিকেট দেখিয়েও আগ্রহীরা টিকা নিতে পারবেন এবং এই কার্যক্রম চলবে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।

টিকাদান কর্মসূচি সম্পর্কে নির্দেশনা

১. ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সব নাগরিকদের টিকা দিতে হবে। 

২. যারা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকার কোনও কেন্দ্রে নিবন্ধন করেছেন তারা টিকা পাবেন। কিন্তু টিকা সনদ প্রাপ্তি জটিলতা এড়াতে অন্য এলাকায় নিবন্ধিত কাউওকে টিকা দেয়া যাবে না।

৩. যাদের এনআইডি আছে কিন্তু নিবন্ধন করেন নাই তাদের স্পট রেজিষ্ট্রেশন করে টিকা দিতে হবে। 

৪. যাদের এনআইডি নাই কিন্তু জন্মসনদ আছে তাদের টিকা দেয়া যাবে। কিন্তু তারা টিকা সনদ পাবেন না, মর্মে অবহিত করতে হবে। তাদের নীল রঙ এর কার্ড দিতে হবে।

৫. যাদের এনআইডি বা জন্ম সনদ কিছুই নাই, তারা ১৮ ঊর্ধ্ব বয়স প্রমাণের জন্য কাউন্সিলর এর প্রত্যয়ন পত্র প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা পাবেন। তাদেরকেও টিকা সনদ পাবেন না মর্মে অবহিত করে টিকা প্রদান করতে হবে। তাদেরও নীল রঙের কার্ড দিতে হবে। 

রাজশাহী মহানগরের ৩৫টি কেন্দ্রে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের দেয়া হচ্ছে ফাইজারের টিকা। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানান, তাদের অধীনে প্রথম পর্যায়ে ১২ হাজার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনা হবে। তারই অংশ হিসেবে প্রায় ৬ হাজার শিক্ষার্থীর টিকা এরই মধ্যে শেষ হয়েছে।

টিকা সংরক্ষণ ও প্রদানের জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষের ব্যবস্থা না থাকায় উপজেলা পর্যায়ে পরীক্ষার্থীদের টিকা দেয়া আপাতত বন্ধ আছে বলে জানিয়েছেন জেলার সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার। 

নেত্রকোনায় শুরু হওয়া এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফাইজার ১ম ডোজ টিকাদান কার্যক্রমের ৩য় দিন আজ। সকাল দশটা থেকে নেত্রকোনা জেলা পরিষদের কেন্দ্রে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকা নিচ্ছে পরীক্ষার্থীরা। প্রতিদিন ৬৫০ জন পরীক্ষার্থীকে টিকা দেয়ার লক্ষ্য থাকলেও টিকা নিচ্ছে সাড়ে ৪শ জন পরীক্ষার্থী। 

গত দুইদিনে  টিকা নিয়েছে নেত্রকোনা সরকারি কলেজের ৯০২ জন পরীক্ষার্থী। জেলায় ১৮ হাজার ৭২০ডোজ ফাইজার টিকা এসেছে। পর্যায়ক্রমে শিক্ষাবোর্ডের তালিকা অনুয়ায়ী জেলার কলেজ, মাদ্রাসা সহ ২১ হাজার ৩৫০শেরও বেশি এইচএ সি পরীক্ষার্থীকে এ টিকা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. অভিজিৎ লোহ। 

জাগরণ/এসএসকে