• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৭, ২০২১, ১২:১৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ২৭, ২০২১, ০৬:১৯ এএম

বিশ্বে করোনায় মৃ ত্যু অর্ধকোটি ছাড়াল

বিশ্বে করোনায় মৃ ত্যু অর্ধকোটি ছাড়াল
ফাইল ফটো

বিশ্বে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) নতুন ভ্যারিয়েন্ট ধরা পড়ায় আবারও দেখা দিয়েছে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা। ইউরোপের অনেক দেশ নতুন করে আবারও লকডাউনের কথা চিন্তা করছে। 

বিশ্বের বেশ কিছু দেশে করোনার ঊর্ধ্বগতি লক্ষ্য করা গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় (শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৬ হাজার ৩৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫২ লাখ ৫ হাজার ৯৯০ জনে। 

এসময়ে বিশ্বে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৯৯ হাজার ৯৮৮ জন। এতে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩ কোটি ৫৬ লাখ ৫৯ হাজার ৫৯৫ জন। 

গত একদিনে বিশ্বে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৮৩৩ জন। এতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ কোটি ৮ লাখ ৫৯ হাজার ৮৬৪ জন।

বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার খবর রাখা আন্তর্জাতিক ওয়েবসাইট ওয়াল্ডওমিটারস থেকে শনিবার (২৭ নভেম্বর) এ তথ্য জানা গেছে। 

বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়ে শীর্ষে থাকা দেশ যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ৩৭ হাজার ৬৪৩ জন।  এতে দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ কোটি ৯০ লাখ ৫০ হাজার ৪০৮ জন। এছাড়া মৃত্যুর সংখ্যা ৭ লাখ ৯৯ হাজার ১৩৭ জন। 

একই সময়ে মৃত্যুর দিক দিয়ে শীর্ষে থাকা রাশিয়াতে নতুন করে ১২৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৭০ হাজার ২৯২ জন। এছাড়া নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৩৪ হাজার ৬৯০ জন। এতে মোট শনাক্তের সংখ্যা ৯৫ লাখ ২ হাজার ৮৭৯ জনে। 

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা শূন্য। কয়েক মাস আগেও করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের দিক দিয়ে শীর্ষে অবস্থান করা ব্রাজিলে এসময়ে নতুন করে ১২ হাজার ২২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া ৩০৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ২০ লাখ ৬৭ হাজার ৬৩০ জনে। আর মৃত্যুর সংখ্যা ৬ লাখ ১৪ হাজার জনে। 

গত একদিনে মৃত্যু বেড়েছে জার্মানি, ইউক্রেন, মেক্সিকো ও পোল্যান্ডে। ওয়াল্ডওমিটারস।

জাগরণ/এসএসকে