• ঢাকা
  • সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ২১, ২০১৯, ০৩:৪৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২১, ২০১৯, ০৯:৪৬ পিএম

শ্রীলঙ্কা বোমা হামলা

নিহত ১৫৬ জনের মধ্যে ৩৫ বিদেশি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
নিহত ১৫৬ জনের মধ্যে ৩৫ বিদেশি

 

ইস্টার সানডের বিশেষ প্রার্থণার সময় শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ১৫৬ তে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত পর্যটকসহ বিদেশি মারা গেছেন ৩৫ জন। বিস্ফোরণে আহত হয়েছেন ৩০০ জনেরও বেশি। সর্বশেষ কলম্বোর চিড়িয়াখানায় আরো একটি বিস্ফোরণে অন্তত দুজন মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। সব মিলিয়ে নিহতের সংখ্যা ১৫৮।

প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিঙ্গে এক বিবৃতিতে এই বোমা হামলাকে ‘কাপুরুষিত’ উল্লেখ করে বলেছেন, তার সরকার ‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন’।

হামলার পর বিদ্ধস্ত গির্জাগুলো ছবি শ্রীলঙ্কা ও আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পরে। বিস্ফোরেণে তিনটি গির্জারই ছাদ উড়ে গেছে। ছাদের ভাঙা অংশ, টাইলস এবং কাঠের আসবাবের মধ্যে রক্ত ও লাশ ছড়িয়ে পরে ছিল। স্থানীয় হাসপাতালগুলোতে অাহতদের ভিড় জমে ওঠে। তবে এখনো কেউ বোমা হামলার দায় স্বীকার করেনি। নিরাপত্তা বাাহিনী এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলো হামলার কারণ সম্পর্কে কিছু জানাতে পারেনি।

তবে শ্রীলঙ্কার পুলিশ বাহিনীর প্রধান পুজুত জয়সুন্দর সম্ভাব্য বোমহামলার কথা জানিয়ে ১০ দিন আগে দেশজুড়ে একটি সতর্কবার্তা জারি করেন। যাতে এনটিজে বা ন্যাশনাল তৌহিদ জামায়াত নামক একটি উগ্রপন্থি মুসলিম দল সম্পর্কে বলা হয়।

সকালে প্রথম হামলাটি হয় রাজধানী কলম্বোর অন্যতম পরিচিত ও বিখ্যাত সেন্ট অ্যান্থনিজ চার্চে। দ্বিতীয় হামলাটি হয়, নেগম্বোর সেন্ট সেবাস্টিয়ান চার্চে। অবশ্য প্রথমে নেগম্বোর বোমা হামলার কথাই সবাই জানতে পারেন ফেসবুক স্ট্যাটাসের কল্যানে। এর পরপরই পুলিশ বাত্তিকালাওয়ের চার্চ এবং তিনটি হোটেলে হামলার কথা জানায়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, নিহতের মধ্যে মার্কিন, ব্রিটিশ ও ডাচ নাগরিক রয়েছে। এছাড়া আহতদের তালিকাতেও ব্রিটিশ ও জাপানি নাগরিক রয়েছেন। পর্যটকদের পছন্দের সিনামন গ্রান্ড ও শাংরি-লার মতো বিখ্যাত হোটেলে হামলা হয়েছে। এর মধ্যে সিনামন হোটেলটির অবস্থান প্রধানমন্ত্রী বাসভবনের বেশ কাছে।   

দেশজুড়ে সতর্ক অবস্থা জারির পাশাপাশি বিশেষ বিশেষ স্পর্ষকাতর স্থানে সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি প্রচুর নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে প্রশানমন্ত্রী দেশবাসিকে শান্ত থাকতে অনুরোধ করেছেন।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

এসজেড