• ঢাকা
  • রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬
প্রকাশিত: জুন ১২, ২০১৯, ০৩:৫০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১২, ২০১৯, ০৪:১৬ পিএম

পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষে রণক্ষেত্র হংকং (ভিডিও সহ)

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষে রণক্ষেত্র হংকং (ভিডিও সহ)
হংকং বিক্ষোভে পুলিশি অ্যাকশন- ছবি: দ্য গার্ডিয়ান

হংকংয়ে প্রস্তাবিত প্রত্যর্পণ বিল নিয়ে চলমান বিক্ষোভে পুলিশ বাধা সৃষ্টি করায় পুরো হংকং জুড়ে সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। সর্বশেষ তথ্য মতে জানা যায়, মঙ্গলবার (১১ জুন) মাঝরাত থেকে পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে অবস্থান নেয়া বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিতে বুধবার (১২ জুন) তাদের ওপর টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। জবাবে বিক্ষোভকারীরা পুলিশ কে লক্ষ্য করে খালি বোতল ছুড়ে মারলে এই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।

ভিডিও দেখুন: হংকং বিক্ষোভের জেরে পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষ (ভিডিও সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান)

এর আগে বুধবার (১২ জুন) কয়েক লাখ বিক্ষোভকারী  বিতর্কিত বিলটি পার্লামেন্টে আলোচনার কথা থাকায় মঙ্গলবার (১১ জুন) সারারাত পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে কয়েক লাখ বিক্ষোভকারী এর প্রতিবাদে অবস্থান নেয়। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ভবনের আশপাশের রাস্তায় অবস্থান নিয়ে ভবনগুলোতে প্রবেশের পথ বন্ধ করে দেন বিক্ষোভকারীরা।

পরে বুধবার সকালে হংকং পুলিশ জানায়, যে কোন ভাবে এই বিক্ষোভ নিভৃত করা হবে। প্রয়োজনে বল প্রয়োগের কথাও জানায় তারা। রয়টার্স

পুলিশকে লক্ষ্য করে বিক্ষোভকারীদের অ্যাকশন- ছবি: দ্য গার্ডিয়ান

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, এদিন ভোররাত থেকেই হংকংয়ের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন বিক্ষোভে যোগ দেয়ার জন্য দলে দলে আসতে শুরু করে। শহরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোও ধর্মঘট শুরু করার প্রস্তুতি নিয়েছে বলেও খবর পাওয়া গেছে ।

এদিকে বিলটি বাতিলের দাবিতে ১০ লাখেরও বেশি মানুষের বিক্ষোভের পরও পিছু না হটে হংকং প্রশাসন। যেকোনো মূল্যে আইনটি পাস করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তারা। ধারণা করা হচ্ছে, এরই প্রেক্ষিতে বল প্রয়োগ শুরু করেছে দেশটির প্রশাসন। 

চীনের প্রস্তাবিত এই প্রত্যর্পণ বিলটি আইনে পরিণত হলে চীন সন্দেহভাজন যেকোনো ব্যক্তিকে বিচারের মুখোমুখি করতে পারবে। বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে হংকংয়ের রাস্তায় বিক্ষোভ করছেন লাখো ছাত্র-জনতা। এক দশকের মধ্যে এটিই হংকংয়ে সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ সমাবেশ।

পুলিশি বাধার মুখে বিক্ষোভকারীদের অবস্থান গ্রহণ- ছবি: দ্য গার্ডিয়ান

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের এক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত বিলটি তৈরি করা হয়। হংকংয়ের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাইওয়ানে ছুটি কাটানোর সময় অন্তঃসত্ত্বা বান্ধবীকে হত্যার অভিযোগ ওঠে। কিন্তু তাইওয়ানের সঙ্গে হংকংয়ের কোনো বন্দিবিনিময় চুক্তি না থাকায় গর্ভবতী বান্ধবীকে খুন করে হংকংয়ে ফিরে আসে ওই ব্যক্তিকে তাইওয়ানে বিচারের জন্য ফেরত পাঠানো যাচ্ছে না।

রোববার থেকে শুরু হয় প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ। হংকং প্রশাসনের পক্ষে থাকা ব্যবসায়ী গোষ্ঠী, আইনজীবী থেকে শুরু করে শিক্ষার্থী, গণতন্ত্রকামী ও ধর্মভিত্তিক গোষ্ঠী এ প্রস্তাবিত বিলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

রয়টার্স/দ্য গার্ডিয়ান

এসকে

Islami Bank