• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৭:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯, ০৭:১৭ পিএম

জালিয়ানওয়ালা বাগ হত্যাকাণ্ড

প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন ক্যান্টারবারি আর্চবিশপ ওয়েলবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন ক্যান্টারবারি আর্চবিশপ ওয়েলবি
জালিয়ানওয়ালা বাগ হত্যাকাণ্ডের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন ইংল্যান্ডের ক্যান্টারবারির আর্চবিশপ জাস্টিন ওয়েলবি। ছবি: ইন্টারনেট

১৯১৯ সালের ১৩ এপ্রিল ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যে অবস্থিত জালিয়ানওয়ালা বাগে ব্রিটিশ সেনারা নির্বিচার গুলি চালিয়ে হত্যা করেছিলো ৩৭৯ জন নিরাপরাধ ও নিরস্ত্র মানুষকে। এই বর্বর গুলিবর্ষণের ঘটনায় আহত হয়েছিলেন প্রায় সহস্রাধিক মানুষ। এতে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তৎকালীন ব্রিটিশ জেনারেল ডায়ার। এবার এই ঘটনার জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন ইংল্যান্ডের ক্যান্টারবারির আর্চবিশপ জাস্টিন ওয়েলবি।

.....................................................................

তারা আপনারা তা আজও স্মরণ করেন, তাদের স্মৃতি রয়ে যাবে। এখানে সংঘটিত অপরাধের জন্য আমি লজ্জিত এবং দুঃখিত। একজন ধর্মীয় নেতা হিসাবে আমি এই মর্মান্তিক ঘটনায় আমি শোকাহত

.....................................................................

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এএফপি প্রকাশিত এক সংবাদে জানা যায়, দুই দিন আগে স্ত্রীকে নিয়ে অমৃতসরে সফরে যান আর্চবিশপ জাস্টিন ওয়েলবি। পরে মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) জালিয়ানওয়ালা বাগের স্মৃতি উদ্যানে গিয়ে প্রকাশ্যে হাত জোড় করে ক্ষমা চাইতে দেখা যায় তাকে। ওই ঘটনার জন্য তীব্র অনুশোচনাও ব্যক্ত করেন তিনি।

জালিয়ানওয়ালা বাগে ব্রিটিশ সেনারা নির্বিচার গুলি চালিয়ে হত্যা করেছিলো ৩৭৯ জন নিরাপরাধ ও নিরস্ত্র মানুষকে। - প্রতীকী ছবি

সুদীর্ঘ একশো বছর পর এই ঐতিহাসিক বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডের জন্য ইংরেজ জাতির প্রতিনিধি হিসেবে এভাবে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন ক্যান্টারবারির এই আর্চবিশপ। এসময় তিনি শুধু ক্ষমাই চাননি, মাটিতে শুয়ে পড়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাও জানিয়েছেন।

এ সময় বিশপ ওয়েলবি বলেন, তারা (শহীদরা যা করেছেন, আপনারা তা আজও স্মরণ করেন, তাদের স্মৃতি রয়ে যাবে। এখানে সংঘটিত অপরাধের জন্য আমি লজ্জিত এবং দুঃখিত। একজন ধর্মীয় নেতা হিসাবে আমি এই মর্মান্তিক ঘটনায় আমি শোকাহত।

এর আগে জালিয়ানওয়ালা বাগের হত্যাকাণ্ডের জন্য পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। সে সময় তিনি ওই হত্যাকাণ্ডকে ভারতে ব্রিটিশ 'কলঙ্ক' বলে উল্ল্যেখ করেছিলেন।

এসকে

আরও পড়ুন

Islami Bank