• ঢাকা
  • বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ৯, ২০১৯, ০৮:৫৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ৯, ২০১৯, ০৯:০২ এএম

ফাহাদকে নিয়ে ভারতীয় এক তরুণীর স্ট্যাটাস

জাগরণ প্রতিবেদক
ফাহাদকে নিয়ে ভারতীয় এক তরুণীর স্ট্যাটাস
বা দিক থেকে তনুশ্রী রায় ও আবরার ফাহাদ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দেশজুড়ে চলছে তীব্র আলোচনা-সমালোচনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে পোস্ট করা স্ট্যাটাসের জের ধরে তাকে শিবির তকমা জুড়ে দেয়া আর নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করার এই ঘটনা দেশের সীমানা ছাড়িয়ে প্রভাব ফেলেছে পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র ভারতেও।

তার পোস্টগুলোর মধ্যে একটি পোস্ট ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে শনিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেন ফাহাদ। মূলত এর জের ধরে রোববার রাতে শেরেবাংলা হলের নিজের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে তাকে ডেকে নিয়ে ২০১১ নম্বর কক্ষে বেধড়ক পেটানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। 

এবার নিজের দেশের স্বার্থ নিয়ে দেশপ্রেমের কথা বলার পরেও একজন মানুষকে হত্যা করার বিষয়টি উঠে এসেছে ভারতীয় এক শিক্ষার্থীর ফেসবুকে। আর তা নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। বাংলাদেশের মানুষ যেমন বিস্মিত হয়েছে, তেমনি এ প্রসঙ্গে বিস্ময় প্রকাশ করেছে প্রতিবেশী দেশ ভারতের এই তরুণী।

ভারতের জয়দেবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তনুশ্রী রায় এ হত্যার প্রতিবাদ করে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। দুই বাংলায় সেই স্ট্যাটাস নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে।

নিচে স্ট্যাটাসটি হুবহু দেয়া হলো-

“যদিও আমি ভারতীয় তারপরও বাংলাদেশের প্রতি আমার আলাদা একটা টান রয়েছে। কারণ আমার পূর্বপুরুষ বাংলাদেশেরই মানুষ ছিলেন ৪৭’র দেশ ভাগের পর ভারতে চলে আসেন।

বাংলাদেশের মানুষ ভালো থাকুক এটা আমি সবসময় চাই। শুনলাম ভারত-বাংলাদেশের চুক্তি নিয়ে স্ট্যাটাস দেয়ায় একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে হত্যা করা হয়েছে।

স্ট্যাটাসটা আমি পড়লাম, নিজের দেশের স্বার্থ নিয়ে লিখার জন্য কীভাবে নিজের দেশেরই লোক একটা ছেলেকে এভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ফেলে এটা আমার কাছে আশ্চর্য লাগছে। সামান্য ফেসবুক স্ট্যাটাসের কারণে মানুষ খুন করে ফেলা হচ্ছে বাংলাদেশে। কীভাবে এমন একটা দেশে মানুষ বাস করে!”

এসকে/টিএফ
 

আরও পড়ুন

Islami Bank