• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ৭, ২০১৯, ০৪:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ৭, ২০১৯, ০৪:২১ পিএম

নিরাপত্তা ফাঁড়িতে সন্ত্রাসী হামলা

বুরকিনা ফাসোয় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বুরকিনা ফাসোয় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৭

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোর উত্তরাঞ্চলীয় মালি সীমান্তবর্তী একটি নিরাপত্তা চৌকিকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে স্থানীয় জঙ্গিরা। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অন্তত ৩৭ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে পাঁচ পুলিশ সদস্যও রয়েছেন। তাছাড়া আহত হয়েছেন আরও কমপক্ষে ৬০ বেসামরিক। হতাহতরা সবাই কানাডিয়ান খনি কোম্পানি সেমাফোর স্থানীয় কর্মী।

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) দেশটির নিরাপত্তা সূত্রের বরাতে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, পশ্চিম আফ্রিকার এই দেশটির সেনারা মূলত জিহাদিদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। আর এ যুদ্ধে এখন পর্যন্ত শত শত লোকের প্রাণহানি হয়েছে। যদিও সংঘাতপূর্ণ উত্তরাঞ্চলে এটি হচ্ছে সাম্প্রতিক সময়ের অন্যতম ভয়াবহ হামলা।

এএফপি'র  দিকে নিরাপত্তা বাহিনীর একজন মুখপাত্র বলেন, ‘মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) দিবাগত ভোররাতে অস্ত্রধারী বেশ কয়েকজন জঙ্গি আওয়ারসির একটি পুলিশ ফাঁড়িতে প্রথম হামলাটি চালায়।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘প্রায় কয়েক ঘণ্টা যাবত চলা এই বন্দুকযুদ্ধের পর হামলাকারী জঙ্গিরা ফাঁড়ির ভিতরে ঢুকে পড়ে। এবারের হামলায় দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা পাঁচ পুলিশ সদস্যকে হারিয়েছি। এতে আরও বেশকিছু বেসামরিকের প্রাণহানি হয়। যারা স্থানীয় একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কাজ করত।’

অপর দিকে উদালান প্রদেশের সেই ফাঁড়ির আশপাশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এরই মধ্যে জোরদার করা হয়েছে। তাছাড়া হামলায় ফাঁড়িটির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। মর্মান্তিক এই হামলার জন্য এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী কিংবা সংগঠন দায় স্বীকার না করলেও এতে স্থানীয় জঙ্গিদেরই দায়ী করছে প্রশাসন।

এর আগে গত রবিবার (৩ নভেম্বর) দেশটির উত্তরাঞ্চলে জিহাদিদের হামলায় ডেপুটি মেয়রসহ অন্তত চারজনের প্রাণহানি হয়। এতে গুরুতর আহত হন আরও বেশকিছু লোক। আহতরা এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

এসকে

আরও পড়ুন