• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ৯, ২০১৯, ০২:১০ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ৯, ২০১৯, ০২:৩৬ এএম

অযোধ্যাজুড়ে নজিরবিহীন নিরাপত্তা

ঐতিহাসিক রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ

এস এম সাব্বির খান
ঐতিহাসিক রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ
রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ - প্রতীকী ছবি

‘সুদীর্ঘ সময় ধরে যে বিষয়টি উপমহাদেশের বুকে রক্তাক্ত সাম্প্রদায়িক বৈরিতার ঐতিহ্য বয়ে চলছে তার প্রেক্ষিতে উভয়পক্ষের স্বার্থরক্ষার্থে একটি ইতিবাচক রায় প্রত্যাশিত। আর যদি সত্যিই এমন আদর্শ সাম্প্রদায়িক মেলবন্ধন সম্ভব হয়, তবে সেটি বিশ্বের ইতিহাসে অসাম্প্রদায়িক ভ্রাতৃত্বের এক অনন্য ইতিহাস রচনা করবে’

.....................................

ভারতীয় উপমহাদেশের সবচেয়ে আলোচিত সাম্প্রদায়িক ইস্যু হিসেবে বিবেচ্য, অবতার রামচন্দ্রের জন্মভূমি অযোধ্যার ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ মামলার রায় আজ। বহুলালোচিত এই মামলার রায় প্রদানকে কেন্দ্র করে এরইমধ্যে কঠোর নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে পুরো অযোধ্যা। সম্ভাব্য যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য মতে, অযোধ্যা তথা পুরো উত্তর প্রদেশজুড়ে নজিরবীহিন নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে সরকার। এরইমধ্যে ‘খাকি সমুদ্রে’ পরিণত হয়েছে অযোধ্যা। রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ প্রাঙ্গণ, হনুমান মন্দিরসহ রাজ্যের প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ এবং র‍্যাপিড অ্যাকশন ফোর্সসহ (আরএএফ) বিভিন্ন নিরাপত্তা বাহিনী  ও গোয়েন্দা সংস্থার কয়েক হাজার সদস্য। ওয়ান ইন্ডিয়া নিউজ

অযোধ্যাজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও বিশেষ নির্দেশনা: 

 অযোধ্যা শহর জুড়ে মোট ৩০টি বম্ব ডিস্পোজাল স্কোয়াড নামানো হয়েছে। সেই সঙ্গে মোতায়েন করা হয়েছে ৩০০ কোম্পানী সেনা। পাশাপাশি কেন্দ্র ও রাজ্য পুলিশের কয়েক হাজার সদস্য ও বিশেষ টাস্ক ফোর্স র‍্যাফ সদস্যদের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে প্রতিটি এলাকায় ও সড়কে। এছাড়া বিমানবন্দর, বাস টার্মিনাল ও রেল স্টেশনে তল্লাশি চালানোর পাশাপাশি নিরাপত্তা নজরদারি জোরদার করতে নামানো হয়েছে ডগ স্কোয়াড।

ঐতিহাসিক রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ রায় প্রসঙ্গে সকলের প্রতি শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে নরেন্দ্র মোদীর টুইট বার্তা- ওয়ান ইন্ডিয়া ইউজ 

• অযোধ্যা রায়ের আগে উত্তরপ্রদেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যসচিব রাজেন্দ্র তিওয়ারি ও ডিজিপি ওম প্রকাশ সিংকে নিয়ে বিশেষ বৈঠক করেন ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। এ মামলার গুরুত্ব বিশ্লেষণ করে অযোধ্যা ও উত্তরপ্রদেশের সংবেদনশীল অঞ্চলগুলির সুরক্ষা নিশ্চিত করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এরইমধ্যে প্রায় ৪ হাজার আধা-সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া

• নিরাপত্তার স্বার্থে বিশেষ ব্যবস্থার আওতায় শনিবার (৯ নভেম্বর) থেকে সোমবার (১১ নভেম্বর) পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উত্তরপ্রদেশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে এক বিশেষ নির্দেশনা জারির মাধ্যমে রাজ্যের সমস্ত ধর্মশালাগুলিকে খালি করে দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া রাজ্যের বাসিন্দা বা স্থানীয় মানুষ নয়, এমন প্রত্যেককে শহর ছাড়তে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস 

আলোচিত এই মামলার রায় প্রকাশকে কেন্দ্র করে কার্যত গোটা অযোধ্যা দুর্গের চেহারা নিয়েছে। ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা সতর্ক করেছে, এই রায়কে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হতে পারে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা। এছাড়া শহরে জঙ্গি হামলার সম্ভাবনার কথাও জানায় তারা। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় তাই নিরাপত্তার জোরদার বন্দোবস্ত গ্রহন করেছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার।

গোটা দেশে সতর্কতা:

এরইমধ্যে আলোচিত মামলাটির রায় ঘোষণার আগেই কেন্দ্র সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিশেষ নির্দেশনা প্রদানে মাধ্যমে ভারতের সব কটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। কোনো রাজ্যে যাতে এই রায়কে কেন্দ্র করে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি গোলমেলে না হয় তা নিশ্চিত করতে স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  ওয়ান ইন্ডিয়া নিউজ

রায় ঘোষণা করবে সর্বোচ্চ আদালত:

ভারতের সর্বোচ্চ আদালতের সাংবিধানিক বেঞ্চে দীর্ঘদিন ধরেই চলেছে এই বহু বিতর্কিত ও আলোচিত অযোধ্যা মামলার শুনানি। সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ - মুখ্য বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এর নেতৃত্বে এই মামলার শুনানিতে বসেছিল। 

দীর্ঘ ৪০ দিনের ম্যারাথন শুনানির পর ১৬ অক্টোবর তা শেষ হয়। তবে স্থগিত রাখা হয় রায় ঘোষণা। সেই রায় আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ঘোষণা হতে চলেছে। যার প্রেক্ষিতে শনিবার (৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে দশটায় রামজন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার চুড়ান্ত রায় ঘোষণা করতে যাচ্ছে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট।  ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ রায় প্রকাশ সংক্রান্ত ভারতীয় সুপ্রীমকোর্টের বিশেষ নির্দেশনা- ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সৌজন্যে

এর আগে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে মধ্যস্থতাকারী প্যানেল বিবাদমান পক্ষগুলিকে নিয়ে সহমত গঠনের প্রচেষ্টা করেছে। পরবর্তীতে মধ্যস্থতাকারী প্যানেলের রিপোর্ট এবং যাবতীয় দিক বিবেচনা করে জানান হয়, আগামীকালই আসতে চলেছে এই মামলার চূড়ান্ত রায়।

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট রায় দিয়ে জানিয়েছিল, অযোধ্যায় বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, নির্মোহী আখড়া ও রামলালা বিরাজমানের মধ্যে সমান ভাবে ভাগ করতে হবে। এ রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে ১৪টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। এরপর তিন সদস্যের মধ্যস্থতাকারী প্যানেল তৈরি করে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। কিন্তু মধ্যস্থতা ব্যর্থ হওয়ায় গত ৬ অগাস্ট থেকে এ মামলার দৈনিক শুনানি শুরু হয়েছিল।

সুপ্রিম কোর্ট গঠিত বেঞ্চে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি এস এ বোবদে, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি এস আব্দুল নাজির।আগামী ১৭ নভেম্বর ভারতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ অবসর গ্রহণ করবেন।

এসকে

আরও পড়ুন