• ঢাকা
  • বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৬, ২০১৯, ০৫:১৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ১৬, ২০১৯, ০৫:১৩ পিএম

দ্য অ্যানুয়েল ক্লাইমেট চেঞ্জ হেলথ স্টাডি

বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি : স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি : স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে শিশুরা

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সৃষ্ট উষ্ণতায় বেড়ে ওঠা শিশুরা তুলনামূলক বেশি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়বে বলে সতর্ক করেছে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য বিষয়ক গবেষণা সংস্থার চিকিৎসকদের একটি আন্তর্জাতিক প্রতিবেদন। 

সম্প্রতি প্রকাশিত  দ্য অ্যানুয়েল ক্লাইমেট চেঞ্জ হেলথ স্টাডি নামের এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক উষ্ণতা ইতিমধ্যে মানুষের স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়িয়েছে। ডায়রিয়া, ডেঙ্গু জ্বর ও ম্যালেরিয়ার মতো মশাবাহিত রোগ বাড়ছে। বাড়ছে বায়ু দূষণও।

এতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার পূর্বাঞ্চলের দাবালন কেবল বনাঞ্চলই ধ্বংস করছে না, কমিয়ে দিচ্ছে খাদ্যের যোগান, এ থেকে সৃষ্ট দূষণ জনস্বাস্থ্যেরও ক্ষতি করছে।

যুক্তরাজ্যের চিকিৎসাবিষয়ক জার্নাল ল্যানসেট এই সমীক্ষাটি প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, চলমান সময়ে জন্ম নেওয়া শিশুরা বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে রোগ ও অপুষ্টির শিকার হওয়ার চরম ঝুঁকিতে আছে। যেমনটা আগে হয়নি। প্রবন্ধে আরও বলা হয়েছে, বৈশ্বিক উষ্ণতা যে হারে বাড়ছে, তাতে ৭ দশকে তাপমাত্রা প্রাক্‌-শিল্পায়নের মাত্রার চেয়ে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়বে।

এক কাউন্টডাউন রিপোর্টে ল্যানসেটের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ডা: নিক ওয়াটস বলেন, এশিয়াতে মশাবাহিত রোগের প্রকোপ, ইউরোপের দিকে এগুচ্ছে। এসব মশা ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়া রোগের জীবাণু বহন করে। আবার দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোতে জিকা ভাইরাস বহনকারী মশা বেড়েছে আশঙ্কাজনকহারে। শুধু মশাবাহিত নয়, ভিবরিও'র ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াও গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে।

গবেষণাটি বলছে, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্ষতিকর ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া অনেক বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠছে। এগুলো সহজেই শিশুদের কাবু করে ফেলবে বলে সতর্ক করছেন চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা।

ডা: নিক ওয়াটসনের মতে, গত ১৫ বছরে নতুন নতুন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। তীব্র গরমে হার্ট ও কিডনির নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা এ বিষয়টাকে তেমন গুরুত্ব দেই না।

এদিকে, ভয়ংকর এক পৃথিবী রেখে যাচ্ছি আমরা ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য- এমনটাই মন্তব্য করেছেন কাউন্টডাউন রিপোর্টিং অ্যানালাইসিসের গবেষকরা। তবে তাদের আশা, আগামী মাসে স্পেনে অনুষ্ঠেয় জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে তাদের প্রতিবেদন নজর কাড়বে বিশ্বনেতাদের। জলবায়ু পরিবর্তনের স্বাস্থ্যঝুঁকিকে সম্মেলনের মূল এজেন্ডা করারও দাবি তুলেছেন তারা।

এসকে