• ঢাকা
  • বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ৩০, ২০২০, ০৫:০৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৩০, ২০২০, ০৫:০৪ পিএম

করোনাকেও হারালেন ১০১ বছরের ‘মিস্টার পি’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
করোনাকেও হারালেন ১০১ বছরের ‘মিস্টার পি’

গত শতকে হারিয়েছিলেন স্প্যানিশ ফ্লুকে এবং এ শতকে পরাস্ত করলেন করোনাভাইরাসকে। 

করোনায় সংক্রমিত হলেও তার সঙ্গে লড়াই করে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১০০ পেরুনো ইতালির এক বৃদ্ধ।

দুই মহামারিকে হারানোর এই ঘটনা যে করোনা-যুদ্ধে ইতালিকে নতুন করে প্রেরণা যোগাবে, তা মনে করছে স্থানীয় প্রশাসন।

উত্তর-পূর্ব ইতালির রিমিনি শহরের বাসিন্দা ১০১ বছরের ওই বৃদ্ধ নিজেকে ‘মিস্টার পি’ হিসাবে পরিচয় দেন। গত শতকে যখন স্প্যানিশ ফ্লু-এর মতো মহামারির দাপটে ত্রস্ত ইতালি সহ গোটা বিশ্ব, সেই সময়ে জন্মেছিলেন তিনি।

১৯১৮ সালের জানুয়ারি থেকে ১৯২০-র ডিসেম্বর পর্যন্ত, বছর দু’য়েকের সেই মহামারির দাপটে সংক্রমিত হয়েছিলেন ইতালি সহ বিশ্বের প্রায় ৫০ কোটি মানুষ। তাতে মৃত্যু হয়েছিল প্রায় ৫ কোটি মানুষের। সেই মহামারিকে হারিয়েছিলেন মিস্টার পি।

সপ্তাহ দু’এক আগে নোভেল করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। এর পর সেখানেই মিস্টার পিকে বাঁচানোর লড়াই শুরু করেন চিকিত্সকরা। বেশ কিছুদিনের লড়াইয়ের পর করোনাকে পুরোপুরি পরাস্ত করেন মিস্টার পি।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন তিনি। এর পর তার আত্মীয়-স্বজন তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে এনেছেন। একে সামান্য ঘটনা হিসাবে দেখছে না রিমিনি শহরের প্রশাসন।

শহরের ডেপুটি মেয়র গ্লোরিয়া লিসি বলেছেন, মিস্টার পি জয়ী হয়েছেন।

শনিবার (২৮ মার্চ) সন্ধ্যায় পরিবারের লোকজন তাকে বাড়িতে নিয়ে গিয়েছেন। এই ঘটনা থেকেই শিক্ষা নেয়া যায়, ১০১ বছর বয়স হলেও কারর সম্পর্কে কোনও ভবিষ্যদ্বাণী করা যায় না।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এই ঘটনা যে ইতালিকে নতুন করে উদ্বুদ্ধ করবে, তা মনে করছেন অনেকে।

এরই মধ্যেই সে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে ৯৭ হাজার। পাশাপাশি মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১১ হাজারের কাছাকাছি মানুষের। পরিস্থিতি সামাল দিতে তিন সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছে সেদেশের সরকার। আনন্দবাজার।

এসএমএম