• ঢাকা
  • বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ৩০, ২০২০, ০৯:১৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৩০, ২০২০, ০৯:১৬ পিএম

ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়নি, করোনায় স্বস্তিবার্তা কেন্দ্রের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়নি, করোনায় স্বস্তিবার্তা কেন্দ্রের
প্রতীকী ছবি

এখনও ‘কমিউনিটি ট্রান্সমিশন’ বা ‘গোষ্ঠী’ সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছায়নি দেশের করোনা পরিস্থিতি। জল্পনা উড়িয়ে স্বস্তির কথা শোনাল কেন্দ্রীয় সরকার।

সোমবার (৩০ মার্চ) কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব লভ আগরওয়াল বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিকে কোনওভাবেই গোষ্ঠী সংক্রমণ বলা যায় না। আমরা এখনও স্থানীয় সংক্রমণের পর্যায়ে রয়েছি। গোষ্ঠী সংক্রমণের ব্য়াপারটি পুরোপুরি জল্পনা।

দেশজুড়ে লকডাউন পরিস্থিতি কাজে দিয়েছে বলেও দাবি করেন লভ আগরওয়াল।

তিনি বলেন, লকডাউনের জেরে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া ১০০ থেকে এক হাজারে পৌঁছতে ১২ দিন সময় লেগেছে। অন্য় অনেক দেশের ক্ষেত্রে এই একই সময়ে ৩ থেকে ৫ হাজার মানুষ মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মোদী সরকারের সঙ্গে একমত বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশ। তাদের মতে, করোনায় ভারত এখনও দ্বিতীয় পর্যায়ে রয়েছে। এই পর্যায়ে বিদেশফেরত কোনও ব্য়ক্তির থেকেই করোনাভাইরাস ছড়ানোর আশঙ্কা থাকে। তাই সংক্রমণের উৎস খোঁজাও অনেক সহজ হয়।

করোনার তৃতীয় পর্যায়ে বা গোষ্ঠী সংক্রমণের ক্ষেত্রে ছবিটা একদম আলাদা। এক্ষেত্রে বিদেশ সফর না করে বা আক্রান্ত ব্য়ক্তির সংস্পর্শে না এসেও করোনা আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। কারণ এই পর্যায়ে সংক্রমণের উৎস খুঁজে পাওয়া কার্যত অসম্ভব। তাই করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধও অনেক কঠিন।

আমেরিকা, ইতালি, স্পেনের মতো অনেক দেশই এখন করোনার তৃতীয় পর্যায়ে রয়েছে। রোববারই দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া হাজারের গণ্ডি ছাড়িয়েছে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, দেশে আক্রান্তের সংখ্য়া ১১০০ ছুঁই ছুঁই। মৃত ২৯ জন। শতাধিক ভাইরাস আক্রান্ত রোগী আপাতত সুস্থ। এই সময়।

এসএমএম