• ঢাকা
  • শনিবার, ৩০ মে, ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ৩১, ২০২০, ০৬:৫৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৩১, ২০২০, ০৩:৪৪ পিএম

দিল্লি তাবলীগ জামাতের ৬ জনের করোনায় মৃত্যু

আন্তর্জতিক ডেস্ক
দিল্লি তাবলীগ জামাতের ৬ জনের করোনায় মৃত্যু

মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সংগঠন তাবলিগ জামাতের একটি আয়োজন গত ১ মার্চ দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদে শুরু হয়। মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব ও কিরগিস্তানের প্রতিনিধিসহ প্রায় দুই হাজার মানুষ ওই আয়োজনে অংশ নেয়। ১৫ মার্চ পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলে।
করোনাভাইরাসের মহামারি ঠেকাতে ২৪ মার্চ থেকে ভারতজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন শুরু হলেও ওই অনুষ্ঠানে আগত অনেকেই সেখানে অবস্থান চালিয়ে যেতে থাকে। এনডিটিভি জানিয়েছে, মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকি সত্ত্বেও লকডাউন শুরুর সময় সেখানে প্রায় এক হাজার চারশো মানুষ উপস্থিত ছিলো। পরে সেখান থেকে প্রায় তিনশো জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।
দিল্লির ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া ছয় জন তেলেঙ্গানায় ফেরার পর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে দুই জন সেখানকার গান্ধী হাসপাতালে এবং বাকি চার জন অ্যাপোলো হাসপাতাল, গ্লোবাল হাসপাতাল, নিজামাবাদ ও গাদওয়াল হাসপাতালে সোমবার মারা যায়।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এসব মানুষের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের শনাক্ত করতে বিশেষ টিম গঠনের কথা জানিয়েছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। তার কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তাদের পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
দিল্লির নিজামুদ্দিনের তাবলিগ জামাতে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের নিকটস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগের আহ্বান জানিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। ওই অনুষ্ঠান শেষে তেলেঙ্গানায় যাওয়া ইন্দোনেশিয়ার দশ নাগরিকের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।
দিল্লির নিজামুদ্দিনে থেকে যাওয়া অনেকের মধ্যে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেওয়ায় রবিবার (২৯ মার্চ) রাতে ওই এলাকা পরিদর্শনে যায় স্থানীয় পুলিশ, কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (সিআরপিএফ) এবং চিকিৎসাকর্মীদের একটি দল। সেখানে বেশ কয়েক জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত থাকতে পারে এমন আশঙ্কায় ওই এলাকা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
তাবলিগ জামাতের ওই আয়োজনের নেতৃত্ব দেওয়া ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের নির্দেশ দিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। দিল্লি পুলিশ বলছে, ২৪ মার্চ থেকে ওই ভবন খালি করতে বলা হলেও অবস্থানরতদের দাবি, লকডাউনের কারণে তারা বের হতে পারছেন না। ছয় তলা ওই ভবনে অবস্থানরতদের মধ্যে ২৮০ জন বিদেশি থাকার কথা জানিয়েছে পুলিশ।
দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, অনুষ্ঠান শেষে ২০ থেকে ৩০টি বাসে করে অনেক অংশগ্রহণকারী ভারতের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়েছে। পরিস্থিতির ব্যাপকতা সম্পর্কে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অভিহিত করেছে পুলিশ। ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, ওই মসজিদ সংলগ্ন নিজামুদ্দিন পশ্চিম এবং নিজামুদ্দিন বস্তি এলাকায় প্রায় ৩০ হাজার মানুষের বাস।
উল্লেখ্য, এখন পর্যন্ত ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার ২৫১ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩২ জনের। তবে দিল্লির ওই আয়োজনের পর দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
এসকে