• ঢাকা
  • শনিবার, ৩০ মে, ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ১, ২০২০, ০২:৫৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১, ২০২০, ০২:৫৩ পিএম

‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মানবজাতি সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের মধ্যে’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মানবজাতি সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের মধ্যে’
জাতিসংঘ প্রধান অ্যান্তোনিও গুতেরেস

অভূতপূর্ব লকডাউন সত্ত্বেও করোনাভাইরাস মহামারিতে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জাতিসংঘ প্রধান অ্যান্তোনিও গুতেরেস বুধবার (১ এপ্রিল) সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর মানবজাতি সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় পতিত হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে মুত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বৃদ্ধি পাওয়ার পরে ডোনাল্ড ট্রাম্প আরও কয়েক সপ্তাহ বেদনাদায়ক পরিস্থিতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের প্রস্তুত থাকতে বলায় জাতিসংঘ প্রধান এ সতর্ক পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করেন।

জন হপকিনস ইউনিভার্সিটির নিয়মিত রিপোর্টে মৃত্যুর সংখ্যা বুধবার ৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে যা গত শনিবারের ২০১০ থেকে দ্বিগুণ।

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধে সরকারগুলো লকডাউন ঘোষণা করায় বিশ্বের অর্ধেক লোক এখন ঘরে অবস্থান করছে। বিশ্বে এ পর্যন্ত ৮ লাখ ৪০ হাজার লোক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে করোনাভাইরাসকে প্লেগ মহামারির সঙ্গে তুলনা করে বলেন, এটি খুবই বেদনাদায়ক, আরও দুই সপ্তাহ বেদনাদায়ক পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, প্রত্যেক আমেরিকানকে সামনের কঠিন দিনগুলোর জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

আমেরিকায় মহামারি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৮৯ হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা কয়েকদিনের মধ্যে দ্বিগুণ হয়েছে।

জন হপকিনস ইউনিভার্সিটির রিপোর্টে বলা হয়, মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) ৮৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

ট্রাম্পের করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্সের সদস্যরা বলেছেন, আগামী মাসগুলোতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ থেকে ২ লাখ ৪০ হাজার দাঁড়াতে পারে।

এসএমএম