• ঢাকা
  • শনিবার, ০৬ জুন, ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০২০, ০৮:৪৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ৮, ২০২০, ০৮:৪৩ পিএম

‘মোদী মহান’, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনে ছাড় দিতেই প্রশংসায় ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
‘মোদী মহান’, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনে ছাড় দিতেই প্রশংসায় ট্রাম্প
নরেন্দ্র মোদী ও ডোনাল্ড ট্রাম্প ● ফাইল ছবি

হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না পাঠালে ফল ভুগতে হবে ভারতকে। তার ঠিক ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সুর বদল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। এ বার তিনি বললেন, মোদী ভাল মানুষ। মোদী মহান!

এক সংবাদ সংস্থাকে ট্রাম্প বলেন, দু’কোটি ৯০ লাখ ওষুধ আসছে ভারত থেকে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা হয়েছে আমার। ভারত থেকে ওষুধ আসছে। মোদী মহান। উনি খুব ভাল মানুষ।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানাচ্ছে, গুজরাতের তিনটে কারখানা থেকে জাহাজবোঝাই ওষুধ পাড়ি দিয়েছে আমেরিকার উদ্দেশে।

বুধবার (৮ এপ্রিল) সকালেই সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, এখনও মোদী যদি এই ওষুধ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা না তোলেন খুব আশ্চর্য হব।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) ট্রাম্প হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না পাঠালে ফল ভুগতে হবে ভারতকে।

তিনি বলেছিলেন, মোদীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হয়েছে। আশা করি, তিনি ওষুধের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবেন। তবে তিনি যদি নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন, আমেরিকা পাল্টা পদক্ষেপ করতে পিছপা হবে না।

তার হুঁশিয়ারির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আমেরিকায় ওষুধ পাঠানোর বন্দোবস্ত করল ভারত। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক থেকে এই মুহূর্তে বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা আমেরিকার। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ‘গেম চেঞ্জার’ হিসেবে কাজ করবে এমনটাই মনে করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তাই আমেরিকায় এই ওষুধের চাহিদা বাড়তে শুরু করেছে। সারা বিশ্বের মধ্যে ৭০ শতাংশ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন উৎপাদন করে ভারত। আমেরিকার ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডও এই ওষুধকে কোভিড-১৯ এর চিকিৎসায় ছাড় দিয়েছে।

কিন্তু গত ২৫ মার্চ এই ওষুধের রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে কেন্দ্র। মঙ্গলবার এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয়, এখন থেকে শুধু মানবিক কারণে এবং আপৎকালীন প্রয়োজনেই এই ওষুধ রফতানি করা যাবে। আনন্দবাজার।

এসএমএম