• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২২, ২০২০, ০৯:২৬ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২২, ২০২০, ০৯:২৬ এএম

ভয়ংকর পরিস্থিতি ইউরোপে, বিশ্বে একদিনেই ৭ হাজার মৃত্যু 

জাগরণ ডেস্ক
ভয়ংকর পরিস্থিতি ইউরোপে, বিশ্বে একদিনেই ৭ হাজার মৃত্যু 

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ইউরোপের দেশগুলো। ইতালি, স্লোভেনিয়া, ক্রোয়েশিয়া, চেক রিপাবলিক, নেদারল্যান্ডস, গ্রিস, রাশিয়া ও যুক্তরাজ্যে একদিনে রেকর্ড সংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এছাড়াও আগস্টের পর একদিনে আবারো করোনায় প্রায় ৭ হাজার মৃত্যু দেখলো বিশ্ব। একইসাথে রেকর্ড ৪ লাখ ৪৩ হাজারে বেশি মানুষের দেহে শনাক্ত হয়েছে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে। 

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) সকাল ৯ টা পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে বিশ্বের ৪ কোটি ১৪ লাখ ৮৪ হাজার ৬৩২ জন। করোনার ভয়াল থাবায় বিশ্বে এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৩৩৫ জনে। বিশ্বে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৩ কোটি ৯ লাখ ১০ হাজার ৮৭৫ জন।

দৈনিক সংক্রমণ আর মৃত্যুতে শীর্ষে ছিল যুক্তরাষ্ট্র। প্রায় একমাস পর ২৪ ঘণ্টায় ১২শতর মতো মৃত্যুতে, দেশটিতে প্রাণহানি দুই লাখ সাড়ে ২৭ হাজার ছুঁয়েছে। আক্রান্ত প্রায় ৮৬ লাখ।

এদিকে ৭ শতাধিক মৃত্যুতে ভারতে প্রাণহানি ১ লাখ ১৭ হাজার ছুঁইছুঁই। অর্ধ লাখের বেশি সংক্রমণ শনাক্তে, দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৭৭ লাখ।

ব্রাজিলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লাখ সাড়ে ৫৫ হাজার, আক্রান্ত ৫৩ লাখের বেশি। মৃতের সংখ্যা ৮৭ হাজার ছাড়িয়েছে মেক্সিকোতে। দিনে ৪ শতাধিক মৃত্যু অব্যাহত আর্জেন্টিনায়।

এছাড়া সেকেন্ড ওয়েভের মুখে ভাইরাসের বিস্তার লাফিয়ে বাড়ছে ফ্রান্স, স্পেন, ইতালি, যুক্তরাজ্য, জার্মানিসহ ইউরোপের বেশিরভাগ দেশে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে। ২ ফেব্রুয়ারি চীনের বাইরে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ফিলিপাইনে। ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

জাগরণ/এমআর