• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ২৪, ২০২০, ০৬:০৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২৪, ২০২০, ০৬:০৫ এএম

এফএটিএফ ধূসর তালিকায় ‘সন্ত্রাসবাদের লালনকর্তা’ পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
এফএটিএফ ধূসর তালিকায় ‘সন্ত্রাসবাদের লালনকর্তা’ পাকিস্তান

বিচ্চিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সম্পর্ক
 তালেবান ও জঈশ-ই-মুহম্মদসহ একাধিক জঙ্গি সংগঠনকে সহায়তা
ক্রমবর্ধমান অস্থিতিশীলতা
সেনা সমর্থিত সরকার ব্যবস্থার অভিযোগ
কাশ্মীর অঞ্চলে জঙ্গি তৎপরতায় সহায়তা
জঙ্গিবাদ দমনে প্রত্যাশিত লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থতা
প্রাদেশিক অঞ্চলে (সিন্ধ-বেলুচিস্তান) জাতিগত নিপীড়ন
সীমান্ত সংঘাত, সন্ত্রাসবাদ ও মাদকপাচারে সংশ্লিষ্টতা

বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসবাদী অপতৎপরতায় সম্পৃক্ত উগ্রপন্থী সংগঠনসমূহকে আর্থিক সহায়তা ও প্রশ্রয় প্রদানের মত গুরতর অভিযোগের প্রেক্ষিতে শেষ পর্যন্ত এফটিএএফ (ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স)-এর ধূসর তালিকভুক্ত রইলো ইমরান খান নিয়াজীর পাকিস্তান। ইমরানের নানামুখী চেষ্টার পরেও হলো না শেষ রক্ষা।

সংস্থাটির তথ্য মতে, নির্ধারিত ২৭টি অ্যাকশন পয়েন্টের শর্ত পূরণে ব্যর্থ হওয়াতেই পাকিস্তানকে ধূসর তালিকাতেভুক্ত রাখা হয়েছে । মূলত, ফিন্যানশিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের চোখ রাঙানিতেও শোধরানোর ইঙ্গিত দেয়নি পাকিস্তান। কাশ্মীরে বিচ্ছিনতাবাদী জঙ্গিদের সাহায্য করা ছাড়াও তালিবানদের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করেছে পাক সেনা। এই সব আবহেই সেই ধূসর তালিকাতেই স্থান হল পাকিস্তানের। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই তালিকাতে থাকতে হবে পাকিস্তানকে।

কালো তালিকাভুক্ত হওয়ার চোখ রাঙানি ছিল পাকিস্তানের উপর
সন্ত্রাসে মদত দেওয়া বন্ধ করার পথে ইমরান খানের সরকার যে হাঁটবে না, তা ইমরান খানের সরকারের কাজে একপ্রকার স্পষ্ট। এই পরিস্থিতিতে ২০১৮ সাল থেকেই পাকিস্তান এফএটিএফ-এর ধূসর তালিকাতে। শুধু তা নয়, গত বছর থেকেই কালো তালিকাভুক্ত হওয়ার চোখ রাঙানি ছিল পাকিস্তানের উপর। তাও শোধরায়নি পাকিস্তান। আর তাতেই নিকট ভবিষ্যতে এফটিএএফের কালো তালিকাভুক্তির সম্ভাবনা জোরদার পাকিস্তানের। 

খাদের ধার থেকে গড়িয়ে পড়া থেকে বেঁচে যাচ্ছে
গত বছর থেকেই পাকিস্তান এফএটিএফ-এর তালিকায় কালো তালিকাভুক্ত হওয়ার সম্মুখীন। তবে প্রতিটি বৈঠকেই কোনও না কোনও ভাবে সেই খাদের ধার থেকে গড়িয়ে পড়া থেকে বেঁচে যাচ্ছে ইমরানের সরকার। তবে অবস্থানের উন্নতি হচ্ছে না। কালো তালিকায় না গেলেও এই মুহূর্তেও পাকিস্তান সেই ধূসর তালিকাতেই রয়েছে। আলজাজিরা

এফএটিএফ নিয়ে পাকিস্তানের অভিযোগ
যদিও পাকিস্তানের বরাবরের অভিযোগ, এফএটিএফ-কে রাজনৈতিক ভাবে চালিত করে পাকিস্তান বিরোধী করে তুলছে ভারত। তবে এই অভিযোগ পুরো মিথ্য়া। সন্ত্রাসবাদ দমনের ক্ষেত্রে পাকিস্তানের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ গোটা এশিয়া প্যাসিফিক গ্রুপ৷ বিভিন্ন মহলের দাবি, তারা সন্ত্রাসে মদত দিচ্ছে।

ইমরানকে একের পর এক আল্টিমেটাম
সন্ত্রাসবাদে অর্থ জোগান রুখতে, অর্থনৈতিক তছরুপের দায়ে ২০১৮ সালের জুনে প্যারিসের এই নজরদারি সংস্থাটি পাকিস্তানকে ধূসর তালিকাভুক্ত করে৷ এরপর থেকেই তারা সন্ত্রাসবাদ রুখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার জন্য একের পর এক আল্টিমেটাম দিয়ে আসছে ইমরান খানের সরকারকে।

এসকে