• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: অক্টোবর ৩০, ২০২০, ০৯:১০ এএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ৩০, ২০২০, ০৯:১০ এএম

নভেম্বরের শুরুতেই পাকিস্তানে সরকার পতনের বিক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
নভেম্বরের শুরুতেই পাকিস্তানে সরকার পতনের বিক্ষোভ
পাকিস্তান জামায়াতে ইসলামীর প্রধান সিরাজুল হক - ছবি : সংগৃহিত

আসন্ন ১ নভেম্বর থেকে পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে দেশটির রাজনৈতিক সংগঠন জামায়াতে ইসলামী। সম্প্রতি সংগঠনটি পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ সরকারের বিরুদ্ধে এ কর্মসূচির ঘোষণা দেয়। এমনিতেই ভালো সময় যাচ্ছে পাকিস্তানে, এর মধ্যে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ বেড়েই চলেছে।

পাকিস্তান জামায়াতে ইসলামীর প্রধান সিরাজুল হক দলের নেতাদের নিয়ে একটি সভার আয়োজন করেন ২৩ অক্টোবর। আন্দোলনের পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করতেই মূলত এই সভার আয়োজন করা হয়। সেখানে বলা হয়, আকাশছোঁয়া মূদ্রাস্ফীতি, বেকারত্ব এবং শাসকদের অক্ষমতার মতো সমস্যা নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে এ আন্দোলন খাইবার পাখতুনখোয়া থেকে শুরু হবে। এক বিবৃতিতে সিরাজুল হক বলেন, সরকার দেশের সব খাত ধ্বংস করে দিয়েছে। এভাবে আর চলতে দেওয়া যায় না।

তিনি বিরোধী জোট পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্টের প্রচারাভিযানের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, জনগণ জানে পিটিআই, পিএমএল-এন ও পিপিপি একই মুদ্রার এপিট-ওপিট। বর্তমান এবং অতীতের শাসকদের মধ্যে কোনো পার্থক্য ছিল না। তিনি আরো বলেন, তথাকথিত মূলধারার বিরোধী দলগুলো বিগত দুই বছরে সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপকে সমর্থন করেছে।

জামায়াতে ইসলামীর প্রধান সিরাজুল হক বলেন, ক্ষমতাসীন অভিজাতদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার সময় এসেছে। দেশকে একটি ইসলামী কল্যাণমূলক রাষ্ট্রে রূপান্তরিত করার জন্য জামায়াতের আন্দোলনের প্রতি সাড়া দেওয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান পাকিস্তানের জামায়াতে ইসলামীর প্রধান। সূত্র : ডন।

এসকে