• ঢাকা
  • সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২০, ০৫:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৪, ২০২০, ০৫:৫২ পিএম

বিশ্বসেরা শিক্ষক ভারতের রঞ্জিতসিন

জাগরণ ডেস্ক
বিশ্বসেরা শিক্ষক ভারতের রঞ্জিতসিন

শিক্ষাব্যবস্থায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ “গ্লোবাল টিচার প্রাইজ” অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ভারতের মহারাষ্ট্রের শিক্ষক ও গবেষক রঞ্জিতসিন দিসেল। পাঠ্যবইয়ে ডিজিটাল শিক্ষা উপকরণ যুক্ত করা, বাল্যবিবাহ বন্ধ ও গবেষণায় বিশেষ ভূমিকা রাখায় এ পুরস্কার পান তিনি।

মহারাষ্ট্রের পারিতেওয়াড়ি গ্রামের বাসিন্দা ৩২ বছর বয়সী রঞ্জিতসিন। নিজ গ্রামে নারী শিক্ষার প্রসার ও কুইক রেসপন্স কোডেড টেক্সটবুক প্রকাশ করে ব্যাপকভাবে আলোচিত তিনি। এবার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির সঙ্গে পুরস্কার বাবদ জিতে নিলেন ১০ লক্ষ ডলার। তবে প্রাপ্ত অর্থের অর্ধেকটাই বাকি প্রতিযোগীদের সঙ্গে ভাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

শিক্ষকদের অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ প্রতি বছর এ পুরস্কার প্রদান করে যুক্তরাজ্যের ভার্কি ফাউন্ডেশন। কোভিড-১৯ মহামারীর প্রাদুর্ভাবের কারণে এবছর অনুষ্ঠানটি অন লাইনে আয়োজন করা হয়। ইতালি, ব্রাজিল, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের শিক্ষকরা বিশ্বসেরার এ তালিকা স্থান পান। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত ১০ প্রতিযোগীর মধ্যে বিজয়ী হন রঞ্জিতসিন দিসেল। 

এ অর্জনের পর সাক্ষাৎকারে রঞ্জিতসিন বলেছেন, “শিক্ষকরাই জাতির প্রকৃত পথপ্রদর্শক। আর আমি বিজয় উদযাপনের চাইতে আনন্দ ভাগ করে নেয়াতেই বিশ্বাসী।” 

এসময় করোনাকালে শিক্ষাব্যবস্থার হাল ধরায় বিশ্বের সব শিক্ষকের প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

কুইক রেসপন্স কোডেড টেক্সটবুকে কিউআর কোডের মাধ্যমে পাঠ্যপুস্তকে ডিজিটাল শিক্ষার উপকরণ যুক্ত করেছেন রঞ্জিতসিন। এর মাধ্যমে পাঠ্যবইয়ে ছাপা কোডটি মোবাইলে স্ক্যান করে অন লাইনে ছড়া-কবিতার-গল্পের অডিও, ভিডিও আর শিক্ষকদের পাঠদান দেখে ঘরে বসেই পড়াশোনা ও অনুশীলন করতে পারছে শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে গ্রামে বাল্যবিবাহ বন্ধে গণসচেতনতা তৈরিতেও রঞ্জিতসিন বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন।

এবার গ্লোবাল টিচার প্রাইজ প্রতিযোগিতায় রানার আপ হয়েছেন যুক্তরাজ্যের গণিত শিক্ষক জেমি ফ্রস্ট। বিনামূল্যে অংক শেখানোর অন লাইন ওয়েবসাইট প্রতিষ্ঠা ও করোনা সংক্রমণ রোধে গণসচেতনতা তৈরির স্বীকৃতিস্বরূপ এ পুরস্কার লাভ করেন তিনি।

আরও পড়ুন