• ঢাকা
  • রবিবার, ০৭ মার্চ, ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২১, ০৪:৩৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২০, ২০২১, ০৬:২৮ পিএম

যুক্তরাষ্ট্রের সরকার উৎখাতের ইতিহাস

যুক্তরাষ্ট্রের সরকার উৎখাতের ইতিহাস

যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতায় আসছে নতুন সরকার। শপথ নিচ্ছেন ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন। যদিও ৬ জানুয়ারির ট্রাম্প-সমর্থকদের তাণ্ডবের রেশ এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি মার্কিন কংগ্রেস। নতুন সরকারপ্রধানের ওপর হামলা কিংবা সরকার উৎখাতের আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। দেশটির অতীত ইতিহাসও কিন্তু তেমনটি বলছে।

১৮৬৫ সালে গৃহযুদ্ধের পর বেশ কিছু বড় পরিবর্তন আসে যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে। দাসপ্রথা বিলুপ্তির পর সবার সমান অধিকার নিশ্চিতে সোচ্চার হয় মার্কিন কংগ্রেস। তবে এ পরিবর্তন মেনে নেয়নি দক্ষিণের রক্ষণশীল সমাজ।

সেসময় ক্যারোলিনার উইলমিংটন শহরের উন্নতির সঙ্গে দেশজুড়ে শ্বেতাঙ্গ-কৃষ্ণাঙ্গের সম্পর্কেরও অগ্রগতি হয়। সবাই একসঙ্গে মিলে গঠন করেন নতুন রাজনৈতিক দল গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টি তথা রিপাবলিকান দল। নির্বাচনী ইশতেহারে ছিল বিনা মূল্যে শিক্ষা, ঋণমুক্তি ও কৃষাঙ্গদের অধিকার আদায়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ সব বিষয়। ১৮৯৬ সালে এই দলটি নর্থ ক্যারোলিনার নির্বাচনে গভর্নরের পদসহ বিপুল ভোটে জয় পায়। সেই সুবাদে ১৮৯৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে প্রথমবার ক্ষমতায় আসে রিপাবলিকান দল।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সরকারের বিরুদ্ধে একত্রিত হতে শুরু করে উগ্রবাদীরা। শুরু হয় কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা ও সরকারি প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর। সরকার হটাতে রেড শার্ট নামের উগ্র শ্বেতাঙ্গবাদীদের উসকে দেয় তারা। কংগ্রেসে অস্ত্রের মুখে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের জিম্মি করে সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করে তারা। এমনকি তাদের অত্যাচারে প্রভাবে ১৯০২ সালে কৃষাঙ্গ ভোটারদের সংখ্যা নেমে আসে মাত্র ছয় হাজারে।

সেই ঐতিহ্যবাহী রিপাবলিকান দলের নেতৃত্ব দিয়ে ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন ডোনাল্ড ট্রাম্প। অথচ ক্ষমতায় এসে উল্টো নিজেই শ্বেতাঙ্গ এবং উগ্র জাতীয়তাবাদকে সামনে নিয়ে আসেন। বহু নাটকীয়তার অবসানের পর ২০২০ সালের নির্বাচনে পরাজিত হন ট্রাম্প। কিন্তু ৬ জানুয়ারি ট্রাম্পের প্ররোচনায় প্রায় ১২০ বছর আগের সরকার উৎখাতের সেই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তির চেষ্টা চালায় তার সমর্থকরা।

৬ জানুয়ারি নিম্নকক্ষে স্পিকারের অফিস দখলে নেন এক ট্রাম্প সমর্থক

১৮৯৮ সালের ঘটনা নিয়ে তৈরি প্রামাণ্য চিত্রের নির্মাতা ক্রিস্টোফার এভারেট বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, “৬ জানুয়ারি ওয়াশিংটনের ঘটনা দেখার পর আমার প্রথম ভাবনায় আসে ট্রাম্পও একই রকম কিছু করতে যাচ্ছেন। তবে নতুন করে সরকার উৎখাতের পরিণতি আগের চেয়েও ভয়াবহ হতে পারে।”

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণ করবেন ২০ জানুয়ারি। যদিও অতীত বলছে, ক্ষমতা গ্রহণের দিন কিংবা পরেও উগ্র শ্বেতাঙ্গদের পক্ষে সরকার উৎখাত করা অসম্ভব কিছু নয়।

তথ্যসুত্র: বিবিসি, সিএনএন ও অন্যান্য।