• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ, ২০২১, ২৪ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২১, ০৫:২৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২১, ২০২১, ০৫:৪০ পিএম

বাইডেনের মন্ত্রিসভা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

বাইডেনের মন্ত্রিসভা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

শপথ গ্রহণের পরই হোয়াইট হাউসে আসীন হয়ে নিজের দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এবার নিজের দপ্তর গঠন আর নীতিনির্ধারণের পালা। ক্ষমতায় আসার প্রথম দিনেই বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিতর্কিত নীতিমালা সংস্কার ও বাতিলে জোর দিয়েছেন বাইডেন। বাতিল করেছেন মুসলিম দেশগুলোর ওপর আরোপিত ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা। এরপর প্যারিস জলবায়ু চুক্তি আর জাতিসংঘের সঙ্গে বাতিল করা চুক্তিগুলো পুনরুদ্ধারে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন জো বাইডেন।

কংগ্রেসের অনুমোদনের পরই কার্যকর হবে বাইডেনের নতুন নীতিমালা। যদিও শপথ গ্রহণের ভাষণে বাইডেন নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য খাত, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক উন্নয়ন, উগ্র শ্বেতাঙ্গ-সন্ত্রাসবাদ দমন আর দেশের আর্থিক উন্নয়ন বিশেষ গুরুত্ব পাবে।

এদিকে প্রস্তাবিত নতুন মন্ত্রিসভায় জায়গা করে নিয়েছেন জাতি-ধর্ম-বর্ণনির্বিশেষে অভিজ্ঞ আর বিচক্ষণ সব নেতা। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশিসংখ্যক নারী নেত্রীকে ক্যাবিনেটে স্থান দেওয়ার পাশাপাশি তৃতীয় লিঙ্গ ও আদিবাসী ডেমোক্র্যাটরাও বাইডেন প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ পদ পেয়েছেন।

ওহায়োর ডেমোক্র্যাট নেত্রী মার্সিয়া ফাজকে গৃহায়ন ও নগর উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, সিনেটের প্রথম নারী আদিবাসী হিসেবে ডিপার্টমেন্ট অব ইন্টেরিয়র তথা অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন ডেব হালান্ড।অন্যদিকে তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম প্রতিনিধি হিসেবে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মনোনীত হয়েছেন র‍্যাচেল লিভাইন। মন্ত্রিপরিষদে বাইডেনের প্রস্তাবিত তালিকায় আরো আছেন:

অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গার্লেন্ড, পররাষ্ট্রমন্ত্রী– অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন, অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন, ডেভিড কোহেন  সিআইএ প্রধান, কৃষিমন্ত্রী টম ভিলস্যাক, বাণিজ্যমন্ত্রী গিনা রাইমন্ডো, শিক্ষামন্ত্রী মিগুয়েল কর্ডোনা, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাভিয়ের বেসেরা, হোমল্যান্ড সিকিউরিটি সার্ভিস প্রধান আলেজান্দ্রো মেয়োর্কাস, চিফ অব স্টাফ রন ক্লেইন ,বিচার বিভাগীয় প্রধান মন্টি উইলকিনসন, রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান এভ্রিস হেইনেস, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সংস্থার প্রধান গ্লোরিয়া স্টিল।

এরই মধ্যে বাইডেনের মনোনীত একজন প্রার্থীর নিয়োগ চূড়ান্ত করেছে সিনেট। তবে বাকিদের স্বীকৃতির জন্যে অপেক্ষা করতে হবে পরবর্তী অধিবেশন পর্যন্ত।