• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ, ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৬, ২০২১, ০৩:০৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৬, ২০২১, ০৩:২৭ পিএম

প্রজাতন্ত্র দিবসে বিক্ষোভ

ভারতে কৃষক-পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ

ভারতে প্রজাতন্ত্র দিবসে নতুন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত কৃষকদের সঙ্গে কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়েছে পুলিশের। মঙ্গলবার রাজধানী দিল্লির সঙ্গে পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলোর সীমান্তবর্তী এলাকায় কয়েক হাজার কৃষক ট্র্যাক্টর নিয়ে র‌্যালি করতে গেলে তাদের বাধা দেয় পুলিশ। এ সময় পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে সামনে অগ্রসরের চেষ্টা করে তারা। ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। এ সময় দিল্লির প্রবেশপথের বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান কৃষকরা।

বিতর্কিত আইন বাতিল করে কৃষকবান্ধব বাজার সৃষ্টির দাবিতে এই কৃষকরা আজ দিল্লিতে জড়ো হচ্ছেন। প্রজাতন্ত্র দিবসে দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে তাদের ‘কিষান প্যারেড’ কর্মসূচি। দিল্লি-হরিয়ানা, পাঞ্জাবের সীমান্তসহ বেশ কিছু পয়েন্টে পুলিশের সঙ্গে কৃষকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। তবে এখনো হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। পুলিশের বাধার মুখে আন্দোলনকারীরা তাদের র‌্যালির পথ পরিবর্তন করে অন্য সড়ক দিয়ে রাজধানীতে জড়ো হচ্ছেন। 

গত বছর সেপ্টেম্বরে ভারতের বিজেপি সরকার চাষাবাদ সম্প্রসারণের লক্ষ্যে আগের কৃষি আইন সংস্কার করে নতুন নীতিমালা নির্ধারণ করেন। তবে প্রস্তাবিত কৃষি আইনে কৃষকরা স্বাধীনভাবে চাষাবাদ করতে পারবে না, এমন আশঙ্কা থেকেই ডাকা হয় ‘ভারত বনধ’। আইন বাতিলের দাবি নিয়ে কয়েক মাস ধরেই দিল্লি অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন এই কৃষকরা।

এ আইনের ফলে মালিকপক্ষ ইচ্ছেমতো ফসল কেনার সুযোগ পাবে এবং অগ্রিম অর্থ দিয়ে কী ফসল চাষ করতে হবে, সেটিও নির্ধারণ করতে পারবে, এমন দাবি কৃষকদের। এতে কৃষকদের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হবে এবং শেষ পর্যন্ত তারা মালিকপক্ষের দাসে পরিণত হবে বলেও আশঙ্কা জানিয়েছেন শ্রমিকনেতারা। নতুন আইনের ওপর সুপ্রিম কোর্টের স্থগিতাদেশ আর সরকারের সমঝোতা প্রস্তাবও থামাতে পারছে না এ আন্দোলন। বিতর্কিত এ আইন পুরোপুরি বাতিল না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

আরও পড়ুন