• ঢাকা
  • শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৩:৫১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৩:৫১ পিএম

নাইজেরিয়াতে ৩১৭ স্কুলছাত্রী অপহরণ, জাতিসংঘের উদ্বেগ

নাইজেরিয়াতে ৩১৭ স্কুলছাত্রী অপহরণ, জাতিসংঘের উদ্বেগ

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি স্কুল থেকে ৩১৭ শিক্ষার্থীকে অপহরণ করেছে অজ্ঞাত অপহরণকারীরা। অপহরণকৃত সবাই জামফারা রাজ্যের জাঙ্গেবে শহরের একটি নিম্নমাধ্যমিক স্কুলের ছাত্রী। দেশটির পুলিশের বিবৃতির বরাতে এখবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব অ্যামেরিকা। 

অপহরণকারীদের ধরতে যৌথ অভিযানে নেমেছে নাইজেরিয়ার পুলিশ ও সেনাবাহিনী। অপহরণ হওয়া ছাত্রীদের বয়স ১০ থেকে ১৩ বছর বলে জানিয়েছে অভিভাবকরা। স্কুলের পাশেই সেনাবাহিনীর নিরাপত্তা চৌকি থাকার সত্ত্বেও অপহরণের ঘটনায় ক্ষোভ জানান তারা। স্থানীয়রা জানান, অপহরণের সময় সন্ত্রাসীদের একটি দল সেনাবাহিনীর নিরাপত্তা চৌকিতেও হামলা চালায়। ফলে অন্য দলটি কোন বাধা ছাড়াই স্কুলছাত্রীদের তুলে নিয়ে যায়। যদিও নিরাপত্তা চৌকির হামলায় এখনো কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

জামফারা রাজ্যে বহু বছর ধরেই বেশ কিছু ডাকাত দল সক্রিয় আছে বলে স্বীকার করেছে নাইজেরিয়ার সরকার। এই ডাকাতরা বিভিন্ন সময় তাদের দাবি আদায় আর সদস্যদের কারাগার থেকে মুক্ত করতে সরকারকে চাপ দিতে স্থানীয়দের অপহরণ করে থাকে।

এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বুহারি বলেন, “ডাকাতরা মুক্তিপণের আশায় নিরীহ স্কুল শিক্ষার্থীদের আটক করে হুমকির মাধ্যমে মুক্তিপণ আদায় করতে চাইছে। তবে নিরপরাধ মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে প্রশাসনকে ধোঁকা দেয়া যাবে না।” এই ঘটনাকে অমানবিক এবং অগ্রহণযোগ্য উল্লেখ করে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে নির্দেশ দেন তিনি।

অপহরণের নিন্দা জানিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ছাত্রীদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। মানবাধিকারবিরোধী ও শিশুদের জন্যে বিপদজনক এমন কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে নাইজেরিয়ার জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে আহ্বান জানায় জাতিসংঘ। যেকোন মূল্যে অপহরণকারীদের বিচার নিশ্চিতেরও আবেদন করে সংস্থাটি।

তবে নাইজেরিয়াতে এ ধরণের অপহরণ এবারই প্রথম নয়। ২০১৪ সালে ২৭৬ স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করেছিল বোকো হারামের জঙ্গিরা। তাদের মধ্যে নিখোঁজ রয়েছে অন্তত ১০০ জন। গত বছরের ডিসেম্বরেও কাটসিনা রাজ্য থেকে ৩৪৪ শিক্ষার্থীকে অপহরণ করা হয়। যদিও পরে তাদের সবাইকে মুক্তি দেয় অপহরণকারী দল।

আরও পড়ুন