• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১, ০৮:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১, ২০২১, ০৯:২৭ পিএম

নির্বাচনের হাওয়া

ব্রিগেডে লাল ঝাণ্ডা সমাবেশ

ব্রিগেডে লাল ঝাণ্ডা সমাবেশ

বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে কলকাতার ব্রিগেডে সবচেয়ে বড় সমাবেশ করেছে কমিউনিস্ট পার্টি মার্কসবাদী (সিপিআইএম)। নির্বাচনী প্রচারে বিজেপি আর তৃণমূলের তুলনায় পিছিয়ে থাকলেও ব্রিগেডের সমাবেশে বামপন্থী জোটের সদস্যদের নিয়ে নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস দিয়েছে দলটি।

রোববারের সমাবেশে ভারতীয় কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে নতুন রাজনৈতিক দল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টকেও আমন্ত্রণ করে সিপিআইএম। সভার ভাষণে ভোটের মাঠে একইসঙ্গে তৃণমূল আর বিজেপিকে নকআউট করার ঘোষণা দিয়েছেন সিপিআইএম এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ সেলিম।

বিজেপির নেতাদের দলবদলের সমালোচনা করার পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাতিজা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির ইঙ্গিত করে কড়া সমালোচনা করেন সেলিম।

মঞ্চে সিপিআইএম নেতা বিমান বসুর সঙ্গে বক্তব্য রাখেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীসহ অনান্য নেতারা। রবিবার কংগ্রেস আর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টকে সঙ্গী করে বামেদের ব্রিগেড সমাবেশে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দেন জোটের নেতারা।

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের বাম-কংগ্রেস জোটের সঙ্গে সংযুক্ত মোর্চা তথা ইউনাইটেড অ্যালায়েন্স জোট গঠন করেছে ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)। নতুন জোটের ডাকেই কলকাতার ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্রিগেড সমাবেশে লাখো জড়ো হয়।

সমাবেশে ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ও ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্টের প্রধান শরিক আব্বাস সিদ্দিকী পশ্চিমবঙ্গ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে উৎখাত করার ঘোষণা দেন।

একই ময়দানে তৃণমূল আর বিজেপির নির্বাচনী সভা আয়োজনের কথা থাকলেও সবার আগে ব্রিগেডে সমাবেশ করে পশ্চিমবঙ্গে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে সিপিআইএম। প্রথম সমাবেশে ব্রিগেডে সমর্থকদের উপচে পড়া ভিড়ের সঙ্গে মাঠজুড়ে ছিল লাল ঝাণ্ডার আধিপত্য।

আরও পড়ুন