• ঢাকা
  • রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ১, ২০২১, ০৫:২৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১, ২০২১, ০৫:৩২ পিএম

অভ্যুত্থানের পর প্রথমবার দেখা গেল সুচিকে

অভ্যুত্থানের পর প্রথমবার দেখা গেল সুচিকে

সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকেই আটক মিয়নামারের স্টেট কাউন্সেলর নেতা অং সান সু চিসহ দলীয় নেতারা। আটক অবস্থায় সামাজিক মাধ্যমে কিংবা ক্যামেরার সামনেও দেখা যায়নি তাকে। সেনাবাহিনী এই নেতাকে তাঁকে কোথায় কিভাবে রেখেছে তা নিয়েও ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়।

অবশেষে সোমবার প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে এলেন সু চি। তবে সশরীরে নয় বরং ভিডিও কলের মাধ্যমে আদালতের বিচারকার্যে উপস্থিত ছিলেন তিনি। নেপিদোর আদালতে বিচার শুরুর পর নিজের আইনজীবী দলের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ দেয়ার আবেদন করেন ক্ষমতাচ্যুত নেতা।

মূলত সেনা সরকারের দায়ের করা দুই মামলায় সাক্ষ্য দিতে যুক্ত হন তিনি। ভিডিওতে সু চিকে শারীরিকভাবে সুস্থ দেখাচ্ছিল বলেই উল্লেখ করা হয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে।

সুচির বিরুদ্ধে শুরুতে বেআইনিভাবে নিজের কাছে বিদেশি ওয়াকিটকি রাখা আর দুর্যোগ আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ করে সেনাবাহিনী। তবে সোমবার দায়ের করা হয় আরও নতুন দুইটি অভিযোগ। সেনা সরকারের দাবি, নির্বাচনী প্রচারে করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের পাশাপাশি দেশে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে রেখেছিলেন তিনি।

এদিকে রোববার পুলিশের সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ১৮ জন নিহতের পর পুনরায় শুরু হয়েছে মিয়ানমারের সেনাশাসন বিরোধী আন্দোলন। সেনা সরাকারের পতন ও আটক নেতাদের মুক্তির দাবিতে ইয়াঙ্গুনসহ বড় শহরগুলোতে বিক্ষোভ চলছে।
 

আরও পড়ুন