• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মে, ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৪, ২০২১, ১১:৫৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৪, ২০২১, ১২:০৫ পিএম

স্বামীর আত্মহত্যার ভিডিও করলেন স্ত্রী!

স্বামীর আত্মহত্যার ভিডিও করলেন স্ত্রী!

পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীর সামনেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী। অথচ তাকে বাঁচানোর পরিবর্তে পুরো ঘটনাটিই নিজের মোবাইল ফোনে ভিডিও করলেন স্ত্রী।

এমনই নিষ্ঠুর ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলার বালি থানার বাদমতলা এলাকায়। আত্মহণনকারী আমন সাউ ওই এলাকার একজন ব্যবসায়ী ছিলেন। মঙ্গলা হাটে তার একটি কাপড়ের দোকান রয়েছে।

স্বামীর আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) নেহা শুকলা নামের ওই গৃহবধূকে গ্রেপ্তার করেছে বালি থানা-পুলিশ। ওই দিনই তাকে ১৪ দিনের জেলহাজতে পাঠায় হাওড়ার আদালত। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়াল।

পুলিশের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানায়, পাঁচ বছর প্রেমের পর গত বছরের ১১ ডিসেম্বর বিয়ে করেন আমন ও নেহা। বিয়ের পর কিছুদিন ভালোই যায় তাদের। কিন্তু নেহা হুগলির উত্তরপাড়ার এক যুবকের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লে দুইজনের সম্পর্কে চিড় ধরে। প্রায়ই বিষয়টি নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হতো।

আমনের পরিবারের অভিযোগ, নেহা সংসার করা বাদ দিয়ে পার্টি করতেন। মাঝেমধ্যেই রাত করে বাড়ি ফিরতেন। এসবের জন্য স্বামীর কাছ থেকে জোর করে টাকাও নিতেন। গত মার্চে কিছুদিন পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে দিল্লিতে কাটিয়ে আসার পর তিনি স্বামীর কাছ থেকে ডিভোর্স চান। ৮ এপ্রিল রাতে স্ত্রীর মোবাইলে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে আপত্তিকর ছবি দেখে ফেলেন আমন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কলহ চরম পর্যায়ে পৌঁছায়।

আমনের পরিবার আরও অভিযোগ করেন, ওই দিন রাতে ঝগড়ার সময় নেহা স্বামীর কথোপকথন নিজের মোবাইলে ভিডিও করতে থাকেন। তখন আমন বলেন, তিনি এমন কিছু করবেন, যাতে নেহা সারা জীবন মনে রাখে। এমন কথা শুনে নেহা হাসতে থাকলে তার সামনেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন আমন। কিন্তু নেহা তাকে বাঁচানো বাদ দিয়ে স্বামীর আত্মহত্যার ভিডিও করেন।

এই ঘটনায় আমনের বাবা নেহার বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে বালি থানায় একটি মামলা করেন। গত মঙ্গলবার পুলিশ নেহাকে গ্রেপ্তার করে। পরে আদালত তাকে ১৪ দিনের জন্য জেলহাজতে প্রেরণ করেন।