• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ মে, ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৯, ২০২১, ০৩:০৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৯, ২০২১, ০৩:১৭ পিএম

রাশিয়া ও চেক প্রজাতন্ত্র

পাল্টাপাল্টি কূটনীতিক বহিষ্কারের প্রতিযোগিতা

পাল্টাপাল্টি কূটনীতিক বহিষ্কারের প্রতিযোগিতা

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতির জেরে কূটনীতিক বহিষ্কারের প্রতিযোগিতায় নেমেছে রাশিয়া ও চেক প্রজাতন্ত্র।

২০১৪ সালে একটি অস্ত্রাগারে বিস্ফোরণের ঘটনায় রুশ সংশ্লিষ্টতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ১৮ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছিল চেক প্রজাতন্ত্র। এবার সেই প্রতিক্রিয়ায় চেক প্রজাতন্ত্রের ২০ কূটনীতিককে দেশ ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে মস্কো।

স্থানীয় সময় শনিবার ২০১৮ সালে যুক্তরাজ্যে রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপালকে বিষ প্রয়োগে হত্যায় জড়িত সন্দেহে অভিযুক্ত দুই ব্যক্তি ২০১৪ সালে চেক প্রজাতন্ত্রের একটি অস্ত্রাগারে হামলা চালিয়েছিল বলে জানায় দেশটির সরকার। এ বিষয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন আর ন্যাটোর কাছেও অভিযোগ করেছে চেক প্রজাতন্ত্র। চেক প্রধানমন্ত্রী আন্দ্রে বাবিসও এক বক্তব্যে ঐ বিস্ফোরণে পেছনে রাশিয়া জড়িত আছে - এমন ইঙ্গিত দেন।

এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে স্থানীয় সময় রোববার রাশিয়া জানায়, চেক প্রজাতন্ত্রের এই পদক্ষেপ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও দুদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের জন্য হুমকিস্বরূপ। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারের চেষ্টাতেই চেক প্রজাতন্ত্র রুশ কূটনীতিক বহিষ্কার করেছে বলেও মন্তব্য করে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এর কয়েক ঘণ্টা পরই ২০ চেক কূটনীতিককে বহিষ্কার করে মস্কো।

চেক  প্রজাতন্ত্র রুশ কূটনীতিকদের দেশ ছাড়তে ৭২ ঘণ্টা সময় দিলেও রাশিয়া চেক কূটনীতিকদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিদায় নিতে নির্দেশ দিয়েছে। ১৯৮৯ সালে পূর্ব ইউরোপ তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রভাব থেকে বেরিয়ে আসার পর থকেই প্রাগ আর মস্কোর মধ্যে এমন বিরোধ চলছে।

আরও পড়ুন