• ঢাকা
  • সোমবার, ২১ জুন, ২০২১, ৮ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২১, ০৯:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২৯, ২০২১, ০৯:৪৪ পিএম

সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন বিখ্যাত হাসির লোকটি

সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন বিখ্যাত হাসির লোকটি

ফেসবুকে জুয়ান জোয়া বোর্জার হাসির ভিডিও দেখেননি এমন লোক খুঁজে পাওয়া মুশকিল। বিভিন্ন ভিডিও, ট্রল আর মিমে দেখা মেলে তার ফোকলা দাঁতের হাসি। উদ্ভট এই হাসি অনেকটা সংক্রামকও বটে। তবে হাসির জন্য বিখ্যাত এই মানুষটি চিরবিদায় নিয়েছেন পৃথিবী থেকে।

স্পেনের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে বিবিসি জানায়, প্রায় এক বছর ধরেই নানাবিধ শারীরিক জটিলতার কারণে শয্যাশায়ী ছিলেন জুয়ান জোয়া বোর্জা। মার্চ মাসে অসুস্থতার কারণে তার একটি পা কেটে ফেলা হলে ভক্তরা তাকে একটি স্কুটার উপহার দেন।

অবস্থার অবনতি হলে কয়েকদিন আগে আবারও হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। স্থানীয় সময় বুধবার সেভিয়ার একটি হাসপাতালে ৬৫ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন স্প্যানিশ এই কৌতুক অভিনেতা।

এল রিসিতাস বা ‘হাস্যোজ্জ্বল মানুষ’ নামেই বেশি পরিচিত ছিলেন তিনি। যদিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে স্প্যানিশ লাফিং গাই নামেই চেনে সবাই। ২০১৪ সালে টেলিভিশনের এক অনুষ্ঠান থেকে তার হাসির ভিডিওটি ভাইরাল হয়। এরপর থেকেই অনেক হাসির ভিডিওতে বাড়তি বিনোদনের জন্য তার ঐ অংশটুকু যুক্ত করতে থাকে সবাই। অ্যাপলের আইফোনের অতিরিক্ত দাম থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদদের বক্তৃতা নিয়ে ঠাট্টা করতেও অনেকে ভিডিওতে তার হাসির দৃশ্য ব্যবহার করেন।

জনপ্রিয় সেই হাসির ভিডিওর পেছনের গল্প: 
প্রায় ২০ বছর আগে স্প্যানিশ উপস্থাপক জেসুস কুইন্তেরোর বিখ্যাত অনুষ্ঠান র‍্যাটোনেজ কোলোরাসে অতিথি হয়ে আসেন জুয়ান জোয়া বোর্জা। ব্যক্তি জীবনের বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে আলাপ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে বোর্জা জানান, কর্মজীবনের শুরুতে সাগর পাড়ে একটি রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন তিনি। সেখানে প্রতিদিন রাতে থালাবাসন পরিষ্কার করতে হতো। এই কাজটি তার একদমই পছন্দ ছিল না। 

তাই এক রাতে থালাবাসন পরিষ্কার না করে সাগরের পানিতে ফেলে রাখেন তিনি। সকালে গিয়ে দেখেন একটা প্লেট ছাড়া সব থালাবাসন সাগরে ভেসে গেছে।

এই ঘটনা বলতে গিয়েই উপস্থাপকের সঙ্গে টেবিল চাপড়ে হাসতে থাকেন বোর্জা। ফোকলা দাঁতের সেই হাসিই পরবর্তীতে ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

২০১৪ সালে প্রথমবার জার্মান চ্যান্সেলর হিটলারকে নিয়ে নির্মিত সিনেমা - ডাউনফলের একটি দৃশ্যের সঙ্গে জুয়ান জোয়া বোর্জার হাসির ভিডিও যুক্ত করে ফেসবুকে শেয়ার করেন এক ব্যক্তি। এরপরই রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে ওঠে তার হাসি।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে স্পেনের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের তারকাসহ আরও অনেকেই।

আরও পড়ুন