• ঢাকা
  • সোমবার, ২১ জুন, ২০২১, ৮ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ৪, ২০২১, ০৫:৪৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ৪, ২০২১, ০৯:৪৯ এএম

বিল গেটস ও মেলিন্ডার বিবাহবিচ্ছেদ

বিল গেটস ও মেলিন্ডার বিবাহবিচ্ছেদ

১২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার অর্থমূল্যের সম্পত্তির মালিক গেটস দম্পতি নিজেদের দাম্পত্যজীবনে অমূল্য সম্পদ ‘সুখ’ - এর দেখা পাননি।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সোমবার রাতে এক টুইটে নিজেদের ২৭ বছরের সম্পর্কের অবসানের কথা জানান শীর্ষ ধনী দম্পতি বিল ও মেলিন্ডা গেটস।

বিবৃতিতে তারা বলেন, “অনেক ভাবনাচিন্তার পর ও সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার বহু চেষ্টার শেষে আমরা বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের আর একসঙ্গে সংসার করা হচ্ছে না।”

বিশ্বের শীর্ষ পঞ্চম ধনী দম্পতি ছিলেন বিশ্বসেরা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা। দুজনে একসঙ্গে প্রতিষ্ঠা করেছেন বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন নামের একটি স্বাস্থ্য ও রোগ প্রতিরোধবিষয়ক দাতব্য সংস্থা। 

কয়েক দিন আগেও একটি ভার্চুয়াল কনফারেন্সে করোনা মোকাবেলায় কর্মরত স্বাস্থ্যকর্মীদের এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন এই জুটি। আর তাই হুট করে তাদের এই বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণায় অনেকে অবাক হয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও এ নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা।

১৯৭৫ সালে প্রযুক্তিবিদ পল অ্যালানের সঙ্গে মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠা করেন বিল গেটস। বিশ্বের শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে মাইক্রোসফট। ১৯৮২ সালে পল অ্যালান অসুস্থতার কারণে দায়িত্ব থেকে সরে আসার পর বিল গেটসই এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্ণধার হয়ে ওঠেন।

১৯৮৭ সালে মাইক্রোসফটে যোগ দেন ৩১ বছর বয়সী মেলিন্ডা। ১৯৯৪ সালে সহকর্মীকে বিয়ে করেন বিলিয়নিয়ার বিল গেটস। তাদের ঘরে রয়েছে জেনিফার (২৫), রোরি (২১), ফিবি (১৮) এই তিন সন্তান। সোমবার বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়ে আলাদাভাবে নতুন জীবন শুরুর জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন দুজন।

সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, এর আগে বিভিন্ন সাক্ষাৎকারেও নিজের দাম্পত্য জীবন নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন ৫৬ বছর বয়সী মেলিন্ডা। ২০১৯ সালে নিজেদের ২৫তম বিবাহবার্ষিকী পালন করেন এই যুগল। তবে এরপরই এক অনুষ্ঠানে মেলিন্ডা বলেন, “বিল গেটস দিনে ১৬ ঘণ্টাই কাজের মধ্যে ডুবে থাকেন। সংসারে সময় দিতে পারেন না খুব একটা। মাঝে মাঝে আমি নিজেকে প্রশ্ন করতাম, এভাবে আর কত দিন?” 

বিয়ের আগেও বিল গেটস কাজের ফাঁকে সংসারে সময় দিতে পারবেন কি না, তা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন বলে জানান মেলিন্ডা। যদিও বিবাহবিচ্ছেদের পরেও একসঙ্গে নিজেদের ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম পরিচালনা যাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

বর্তমানে বিশ্বের চতুর্থ ধনী ব্যক্তি বিল গেটস। যদিও মোট সম্পদের অর্ধেকই তিনি দান করে গেছেন বিভিন্ন দাতব্য সংস্থা ও তথ্য প্রযুক্তি খাতে উন্নতির জন্য। ১৯৯৪ সাল থেকে ৪০ বিলিয়ন ডলার অনুদানের মাধ্যমে তারা গড়ে তোলেন বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা ফাউন্ডেশন। বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতের গবেষণা আর উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে এই প্রতিষ্ঠানটি।

আরও পড়ুন