• ঢাকা
  • বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২১, ০৪:০৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৪, ২০২১, ০৪:০৩ পিএম

অস্ত্রবিরতিতেও রক্ত ঝরল আফগানিস্তানে, নিহত ১১

অস্ত্রবিরতিতেও রক্ত ঝরল আফগানিস্তানে, নিহত ১১

মুসলমানদের সর্ব বৃহৎ উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আফগানিস্তান সরকার ও তালেবানদের মধ্যে তিনদিনের যুদ্ধবিরতি চলছে। এর মধ্যেই রক্ত ঝরেছে দেশটিতে।

অস্ত্রবিরতির প্রথম দিন বৃহস্পতিবার (১৪ মে) পৃথক হামলায় ১১ বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং অপর ১৩ জন আহত হয়েছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ হয়েছে।

আল-জাজিরা বলছে, তালেবান এবং সরকারি বাহিনীর মধ্যে সরাসরি কোনো সংঘাত না হলেও রাস্তার পাশে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে হতাহত বাড়া অব্যাহত রয়েছে।

আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কান্দাহার প্রদেশের পুলিশের মুখপাত্র জামাল নাসির বারেকজাইয়ের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, সেখানকার পাঞ্জওয়াই জেলায় রাস্তার পাশে থাকা বোমা একটি গাড়িতে আঘাত করলে পাঁচজন নিহত হন। এদের মধ্যে একজন নারী ও শিশু রয়েছে।

একই প্রদেশের মাইওয়ান্দ জেলায় একটি ট্যাক্সির নিচে বোমা বিস্ফোরিত হয়ে দুই শিশু নিহত এবং আরও তিন ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন।

উত্তরাঞ্চলীয় কুন্দুজ প্রদেশের পুলিশ প্রধানের মুখপাত্র জানিয়েছেন, সেখানে একটি বেসামরিক গাড়িতে লাগানো বোমা বিস্ফোরিত হয়ে দুইজন নিহত এবং আরও ১০ জন আহত হয়েছেন।

একই দিন আফগানিস্তানের মধ্যাঞ্চলীয় গজনী প্রদেশে রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে আরো দুইজন নিহত হয়েছেন।

সম্প্রতি আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এশিয়ার দেশটি থেকে সব সেনা সরিয়ে নেয়া হবে বলে জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। তবে তাদের এ ঘোষণার পর থেকেই আফগানিস্তানে সহিংসতা ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে।

এর মধ্যে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তিনদিন অস্ত্রবিরতি পালনের প্রস্তাব দেয় তালেবান। তাতে রাজি হয় আফগান সরকারও। তবে তাদের এই সাময়িক সমঝোতায় প্রাণহানি বন্ধ হয়নি।