• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮
প্রকাশিত: মে ১৬, ২০২১, ০৪:৪৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৬, ২০২১, ০৪:৫৯ পিএম

ইসরায়েলকে সমর্থন দেয়ায় তোপের মুখে বাইডেন

ইসরায়েলকে সমর্থন দেয়ায় তোপের মুখে বাইডেন

২০২০ সালে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও জাতিগত বিভেদ নির্মূলের ব্যর্থতায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিল ডোনাল্ড ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান। এবার ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলের হামলার সমর্থন জানিয়ে মানবাধিকারের প্রশ্নে নিজ দলেই তোপের মুখ পড়েছেন নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের সংঘাত বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান কি হওয়া উচিৎ - এই প্রশ্নে বিভক্ত হয়েছে ডেমোক্র্যাট দল। গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিক্রিয়া নিয়েও দলের ভেতর মতবিরোধ দেখা গেছে।

মানবাধিকারের প্রশ্নে ইসরায়েলের ওপর চাপ প্রয়োগের জন্য প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছে দাবি জানিয়েছেন অনেক ডেমোক্র্যাট নেতা। ইসরায়েলকে হামলায় উস্কানি দেওয়ার জন্য এবং ফিলিস্তিনের মানবাধিকার রক্ষার আন্দোলনকে ‘সহিংসতা’ আখ্যা দিয়ে বিবৃতি দেওয়ায় হোয়াইট হাউজের তীব্র সমালোচনা করেছে উদারপন্থিরা।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্ণবাদের ইতিহাস এবং সাম্প্রতিক ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের উদাহরণ টেনে জাতিগত বিভেদ নির্মূলে বৈদেশিক নীতির ক্ষেত্রেও সরকারের অবস্থান একই হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন অনেক রাজনীতিবীদ। পূর্ব জেরুজালেমে থেকে ফিলিস্তিনিদের পরিকল্পিতভাবে উচ্ছেদের বিরোধিতা না করায় বাইডেনের সমালোচনা করেছেন তারা।

জেরুজালেমে হামাসের হামলার জবাবে সোমবার থেকে চলমান ইসরায়েলের হামলায় এ পর্যন্ত অন্তত ১৪০ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। তবে শনিবার এর প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লয়েড অস্টিন ইসরায়েলের বিমান হামলার বিরুদ্ধে কথা না বলে, বেসামরিক লোকদের লক্ষ্য করে হামাসের রকেট হামলার নিন্দা জানান।

এছাড়াও বুধবার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও ইসরায়েল ‘আত্মরক্ষায়’ বিমান হামলা চালিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন। এরপরই ইসরায়েলের পক্ষে অবস্থান নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়ে বাইডেন প্রশাসন।

আরও পড়ুন