• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১, ১২:৫৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১, ০৬:৫৫ পিএম

চীনে নিষিদ্ধ ক্রিপ্টোকারেন্সি

চীনে নিষিদ্ধ ক্রিপ্টোকারেন্সি
প্রতীকী ছবি

এবার ক্রিপ্টোকারেন্সি সংশ্লিষ্ট সবধরনের আর্থিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করলো চীন। দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ক্রিপ্টোকারেন্সি সংশ্লিষ্ট সব ধরনের আর্থিক লেনদেনকে বেআইনি ঘোষণা করেছে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) পিপলস ব্যাংক অব চায়না তাদের সরকারি ওয়েবসাইটে এক অনলাইন বিবৃতিতে এ সিদ্ধান্তের কথা নিশ্চিত করেছে। 

পিপলস ব্যাংক অব চায়নার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভার্চুয়াল কারেন্সি এক্সচেঞ্জ যা ইন্টারনেট ব্যবহার করে লেনদেন হয়ে থাকে, সেরকম আর্থিক কার্যকলাপ অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে। বিদেশি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জের কর্মীদেরও তদন্তের আওতায় আনা হবে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি বিষয়ক আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুসারে তদন্ত ও বিচারের মুখোমুখি হতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি চীনের। 

দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পাশাপাশি ব্যাংকিং, সিকিউরিটিজ এবং ফরেন এক্সচেঞ্জ রেগুলেটরসহ দশটি সংস্থা ক্রিপ্টোকারেন্সি কার্যকলাপ নির্মূল করার জন্য কাজ করেছে। 

ক্রিপ্টোকারেন্সি বা গুপ্তমুদ্রা বা বিটকয়েন এক ধরনের সাংকেতিক মুদ্রা যার কোনও বাস্তব রূপ নেই। এর অস্তিত্ব শুধু আন্তর্জাল বা ইন্টারনেট জগতেই বিদ্যমান। এটি ব্যবহার করে লেনদেন শুধু অনলাইনেই সম্ভব। ২০১৭ সাল থেকে এটি একটি উঠতি বাজারে পরিণত হয়েছে। বিটকয়েনের অন্যতম শীর্ষ একজন পৃষ্ঠপোষক মার্কিন ধনকুবের এলন মাস্ক।

এ মুদ্রার দর অনিয়ন্ত্রিতভাবে উঠানামা করে। ২০১৩ সালে বিটকয়েনের দর সর্বোচ্চ উঠে ৪০০ ডলার পর্যন্ত। মাত্র ৪ বছর পর ২০১৭ সালে এ মুদ্রার দাম ২০ হাজার ডলারে পৌঁছায়। চলতি মাসে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে মধ্য আমেরিকার এল সালভাদর বিটকয়েনকে বৈধতা দেয়। 

জাগরণ/এমএ