• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ মে, ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১২, ২০২১, ০৯:৫২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ১২, ২০২১, ০৩:৫২ এএম

মোদির টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক, ছড়ালো বিটকয়েন গুজব

মোদির টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক, ছড়ালো বিটকয়েন গুজব
ফাইল ফটো।

গভীর রাতে হ্যাক হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট। অবশ্য অল্প কিছু সময়ের মধ্যেই যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করে অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে সমর্থ হয় ভারতের কর্মকর্তারা। তবে এর আগেই হ্যাককৃত অ্যাকাউন্ট থেকে বিটকয়েন নিয়ে ছড়ানো হয় গুজব।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, শনিবার মধ্যরাতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অফিশিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে যায়। এরপর সেই অ্যাকাউন্ট থেকে লেখা হয়, ‘দেশে বৈধতা পাচ্ছে বিটকয়েন। সরকার ৫০০ বিটকয়েন কিনেছে। দেশবাসীর মধ্যে তা ভাগ করে দেওয়া হবে।’

এরপরই মোদির টুইটার অ্যাকাউন্টের সেই স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যায়। তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি হয় নেটমাধ্যমে। এমনকি কটাক্ষ ও সমালোনাও শুরু হয়ে যায়। তড়িঘড়ি করে আসরে নামেন আইটি ও সাইবার বিশেষজ্ঞরা। পরে দ্রুততার সঙ্গে অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়।

পরে নরেন্দ্র মোদির কার্যালয়ের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির টুইটার হ্যান্ডেলটি ‘খুবই সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য হ্যাক করা হয়েছিল’ এবং পরে তা ফের সুরক্ষিত করে অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। বিষয়টি টুইটার কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অ্যাকাউন্টে বিটকয়েন দেয়ার প্রতিশ্রুতিসহ একটি লিংক শেয়ার করা হয়েছিল। এসব টুইট গুরুত্ব দেয়ার প্রয়োজন নেই।’

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর টুইটার অ্যাকাউন্টে ৭ কোটি ৩৪ লাখেরও বেশি ফলোয়ার রয়েছে। হ্যাক হওয়ার কিছু পরই অ্যাকাউন্টটিকে পুনরুদ্ধার করা হয় এবং ভুয়া টুইটগুলোকে ডিলিট করে ফেলা হয়।

এরপরই টুইটারে ‘হ্যাক’ হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ড করতে থাকে। ভারতীয় যুব কংগ্রেসের জাতীয় সভাপতি শ্রীনিবাস বিভি টুইট করে লেখেন, ‘গুড মর্নিং মোদীজি, সব চাঙ্গা সি (সব ভালো আছে তো)? ’ 

রাজনৈতিক বিশ্লেষক তহসিন পুনাওয়ালা এক টুইটে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীজি-র টুইটার অ্যাকাউন্ট কি হ্যাক করা হয়েছিল? এবং #বিটকয়েনের প্রতিশ্রুতি!!’

উল্লেখ্য, যে টুইটার অ্যাকাউন্ট প্রধানমন্ত্রী মোদির ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপ আপডেট করে, গত বছরের সেপ্টেম্বরে সেটি অজানা একটি গ্রুপ হ্যাক করেছিল। অবশ্য মধ্যরাতে মোদির টুইটার হ্যাক করার পিছনে কারা জড়িত তা এখনও জানা যায়নি। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে তদন্ত চলছে।

 

এসকেএইচ//