• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২, ১২:৪৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২, ০৯:২৮ এএম

বউকে পেটানোর পরামর্শ দিলেন নারী বিষয়ক মন্ত্রী

বউকে পেটানোর পরামর্শ দিলেন নারী বিষয়ক মন্ত্রী
সংগৃহীত ছবি

অবাধ্য স্ত্রীদের পেটাতে বললেন মালয়েশিয়ার একজন নারী মন্ত্রী। স্ত্রীদের আচরণ শুধরাতে তাদের ‘হালকাভাবে’ প্রহারের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

ওই মন্ত্রীর নাম জাইলাহ মোহাম্মদ ইউসুফ। তিনি নারী, পরিবার ও কমিউনিটি উন্নয়ন বিষয়ক উপমন্ত্রী। তিনি এমন পরামর্শ দেয়ার পর তার বিরুদ্ধে পারিবারিক সহিংসতা ‘স্বাভাবিক’ ঘটনা হিসেবে দেখানোর অভিযোগ উঠেছে।

 

তিনি বলেন, স্বামী কতটা কঠোর এবং সে ‘কতটুকু পরিবর্তন করতে চায়’ তা দেখানোর জন্য স্ত্রীকে প্রহার করা উচিত।

মাদার’স টিপস নামে ইন্সটাগ্রামে পোস্ট করা দুই মিনিটের এক ভিডিওতে এমন পরামর্শ দেন জাইলাহ। তিনি বলেন, প্রথমে কথার মাধ্যমে অবাধ্য স্ত্রীকে ‘শৃঙ্খলা’ শেখাতে হবে।

কিন্তু তারা কথা না শুনলে, তাদের সঙ্গে তিনদিনের জন্য বিছানা আলাদা করতে হবে। তবে স্ত্রী যদি এরপরও কথা না শোনে বা তার আচরণে পরিবর্তন না আসে, তাহলে তাকে হালকাভাবে প্রহারের মাধ্যমে স্বামী নিজের কঠোরতা বোঝাতে পারেন।

এই উপমন্ত্রী প্যান-মালয়েশিয়ান ইসলামিক পার্টির একজন এমপি। তিনি বলেন, শুধু অনুমতি পেলেই স্বামীদের সঙ্গে কথা বলা উচিত স্ত্রীদের।

জাইলাহ বলেন, আপনাদের স্বামীরা যখন শান্ত থাকেন, খাওয়া-দাওয়া শেষ করেছেন, নামাজ পড়েছেন এবং আরাম করছেন, তখন তাদের সঙ্গে কথা বলুন। যখন কথা বলার প্রয়োজন হবে, তার আগে অনুমতি নিন।

তার এমন মন্তব্যের পর নারী অধিকার গ্রুপগুলো কঠোর সমালোচনা করছে। তাদের অভিযোগ নারী বিষয়ক মন্ত্রী হয়েও তিনি পারিবারিক সহিংসতাকে ‘স্বাভাবিক’ হিসেবে উপস্থাপন করছেন। তার পদত্যাগও দাবি করেছে সংগঠনগুলো। ডেইলি মেইল।

জাগরণ/আন্তর্জাতিক/এমএ