• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২২, ০৫:৫৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ২৯, ২০২২, ১১:৫৩ এএম

রশি দিয়ে কুমিরকে বশে আনলেন এক ব্যক্তি

রশি দিয়ে কুমিরকে বশে আনলেন এক ব্যক্তি

ডাঙায় দুই দিন ধরে ঘুরে বেড়াচ্ছিল ১৪ দশমিক ১ ফুট লম্বা একটি বিশাল কুমির। পানিতে নামার কোনো হেলদোল নেই তার। এদিকে অতিকায় এই কুমির দেখে স্থানীয় লোকজনের তো ঘুম হারাম। এলাকাবাসীর এমন বিপদে এগিয়ে এলেন উসমান নামের এক ব্যক্তি। শুধু একটি রশি দিয়েই কুমিরটিকে পাকড়াও করে ফেলেন তিনি। জনগণকে স্বস্তি দিয়ে এখন তিনি ভাসছেন প্রশংসায়।

ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি দ্বীপের আম্বাউ ইন্দাহ গ্রামে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে বলে গতকাল মঙ্গলবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে। অতিকায় কুমিরটিকে কাবু করে গ্রামে রীতিমতো নায়ক বনে গেছেন ৫৩ বছর বয়সী উসমান। এই ইন্দোনেশীয় বলেন, ‘কুমিরটি না ধরলে জমির দিকে উঠে আসত। আমরা ধানখেতে যেতে পারতাম না।’

উসমান আরও বলেন, ‘এখানে সড়কের পাশে খাল আছে। এখানকার নিচু এলাকায় স্থানীয় লোকজন মাছ শিকার করে থাকেন। যদি কুমিরটি খালে চলে আসত, তাহলে বিপদ হতে পারত। তাই আমাকে কুমিরটি ধরার চেষ্টা করতে হয়েছে।’

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, রশি দিয়ে কুমিরটির চোয়াল শক্ত করে বেঁধে ফেলছেন উসমান। তাঁর এই চেষ্টার ভূয়সী প্রশংসা করা গ্রামবাসীদের একজন উমর সিদ্দিক আল ফারিজি। তিনি বলেন, সমাজের সবাই উসমানের কাজের প্রশংসা করছেন। কেউ কেউ একে বীরত্বপূর্ণ কাজ বলেও মনে করছেন। কারণ, কুমিরটির আক্রমণ থেকে অনেকেই রক্ষা পেয়েছেন।

উমর সিদ্দিক আল ফারিজি বলেন, অতীতে ওই এলাকায় কুমিরের কয়েকটি আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। কুমিরটি না মেরে এটিকে আটক করে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানান উসমান।

তাঁর এই সিদ্ধান্তকেও স্বাগত জানান উমর সিদ্দিক আল ফারিজি। তিনি বলেন, ‘উসমান মনে করেছেন, বন্যার কারণে বিরল এই প্রাণীটির আবাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি ভেবেছেন, কুমিরটিকে হত্যা না করে রক্ষা করা উচিত।’ কুমিরটিকে অভয়ারণ্যে অবমুক্ত করা হবে বলে স্থানীয় প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংস্থার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

 

এসকেএইচ//