• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
প্রকাশিত: জুলাই ৩১, ২০২২, ০৫:২৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ৩১, ২০২২, ১১:২৩ এএম

ইউক্রেন সংকট

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতি ভাঙছে: রাশিয়া

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিশ্রুতি ভাঙছে: রাশিয়া

গত ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর এই প্রথম নিজেদের মধ্যে আলাপ করলেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন ও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। রাশিয়ায় দুই আমেরিকান বন্দিকে মুক্ত করার চেষ্টার অংশ হিসেবে গত শুক্রবার দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফোনালাপ হলো। নিজেদের মধ্যকার এই আলাপকে 'খোলামেলা' বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে আলাপের পর যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া।

ইউক্রেন যুদ্ধের আগে থেকেই 'ক্যানাবিস অয়েল' পরিবহনের দায়ে বাস্কেটবল তারকা গ্রিনার ও গোয়েন্দাগিরির দায়ে সাবেক মেরিন সেনা হুইলান রাশিয়ায় কারাভোগ করছেন। তবে সম্প্রতি তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিচার হয়েছে। বিচারে এই দু'জনকে দোষী সাব্যস্ত করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হুইলান। এই দু'জনকে দেশে ফিরিয়ে আনতে মার্কিন জনগণের চাপে আছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

ফোনালাপের পর সাংবাদিকদের ব্লিংকেন বলেন, মার্কিন দুই বন্দি পল হুইলান ও ব্রিটনি গ্রিনারকে মুক্তি দিতে আমরা যে প্রস্তাব দিয়েছি, তা গ্রহণ করতে ক্রেমলিনকে জোর দিয়ে বলা হয়েছে। আমাদের মধ্যে খোলামেলা ও সরাসরি আলোচনা হয়েছে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের অভিযোগ এনে সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে রাশিয়ার খাদ্য সরবরাহের বিষয়টি নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখার যে অঙ্গীকার করা হয়েছিল বাস্তবে সেটি মেনে চলা হচ্ছে না।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, অ্যান্টনি ব্লিংকেনের সঙ্গে আলাপকালে সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, রাশিয়া ইউক্রেনে তার 'বিশেষ সামরিক অভিযানের' সব লক্ষ্য অর্জন করবে। ইউক্রেনকে পশ্চিমাদের অস্ত্র সরবরাহ কেবল এই সংঘাতকে দীর্ঘায়িত করবে। জবাবে অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্র্রদায় এই দখলদারিত্বকে স্বীকৃতি দেবে না। রাশিয়া তার পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে গেলে এর জন্য তাদের মূল্য দিতে হবে।

এদিকে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী শনিবার দাবি করেছে, তারা খেরসন অঞ্চলে লড়াইয়ে বহু রুশ সেনাকে হত্যা করেছে। এ ছাড়া শত্রুপক্ষের দুটি গোলাবারুদের গুদাম ধ্বংস করে দিয়েছে। ইউক্রেনীয় সামরিক বাহিনীর দক্ষিণাঞ্চলীয় কমান্ড জানিয়েছে, খেরসন অঞ্চলে লড়াই চলাকালে তারা ১০০ জনেরও বেশি রুশ সেনাকে হত্যা এবং দেশটির সাতটি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে। এ ছাড়া দিনিপার নদীর ওপর দিয়ে খেরসন পর্যন্ত রেল চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে অধিকৃত ক্রিমিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে রুশ বাহিনী। একটি অসমর্থিত সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, খেরসন অঞ্চল পুনরুদ্ধারে ইউক্রেনীয় যোদ্ধারা সম্প্র্রতি ভারী কামান, প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম নিয়ে সেখানে প্রবেশ করেছে।

ইউক্রেন যুদ্ধের সূত্র ধরে ইউরোপের দেশ লাটভিয়ায় গ্যাস সরবরাহ স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া। শনিবার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় জ্বালানি কোম্পানি গ্যাজপ্রম এই ঘোষণা দেয়। অথচ মাত্র এক দিন আগেই লাটভিয়ার জ্বালানি প্রতিষ্ঠান লাটভিজাস গেজ জানায়, রাশিয়া থেকে তারা গ্যাস কিনছে। তবে গ্যাজপ্রমের সঙ্গে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে রুশ মুদ্রা রুবলের বদলে ইউরোতে অর্থ পরিশোধ করা হবে। ওই ঘোষণার এক দিনের মাথায় দেশটিতে সরবরাহ বন্ধের কথা জানায় গ্যাজপ্রম।

যুদ্ধের ডামাডোলের মধ্যেই রাশিয়াবিরোধী প্রচারণা চালানোর কারণে নিউজিল্যান্ডের ৩২ জন কর্মকর্তা-সাংবাদিককে নিষিদ্ধ করেছে মস্কো। এই তালিকায় আছেন নিউজিল্যান্ডের নৌবাহিনীর উপপ্রধান শেন আর্নডেল ও ওয়েলিংটনের মেয়র অ্যান্ডি ফস্টারসহ অন্যান্য কর্মকর্তা। অনির্দিষ্টকালের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

এদিকে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার ৭৫ হাজারের মতো সেনা নিহত ও আহত হয়েছেন। মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের তথ্যের বরাত দিয়ে এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ হয়েছে। তবে এসব দাবি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে ক্রেমলিন। সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স, আলজাজিরা ও এএফপি।

 

এসকেএইচ//