• ঢাকা
  • বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২২, ০৮:৩০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ৩, ২০২২, ০২:৩০ পিএম

দলসহ নিষিদ্ধ হতে পারেন ইমরান খান

দলসহ নিষিদ্ধ হতে পারেন ইমরান খান

বিদেশি অবৈধ উৎস থেকে অর্থ নেয়ার ঘটনায় গোটা দলসহ নিষিদ্ধ হতে পারেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন এক রায়ে জানিয়েছে, ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর বিরুদ্ধে বিদেশ থেকে অনুদান পাওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে যা পাকিস্তানে অবৈধ। যার ফলস্বরূপ তিনি এবং তার দলকে রাজনীতি থেকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে।
 
পিটিআই-এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আকবর এস. বাবরের করা এক মামলার পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) সিকান্দার সুলতানা রাজা এ রায় দেন। ২০১৪ সালের ১৪ নভেম্বর দায়ের করা মামলাটি এত দিন ঝুলে ছিল। গত ২১ জুনের শুনানি শেষে মামলার রায়ের জন্য গতকালের দিন নির্ধারণ করা হয়েছিল।

লিখিত রায়ে ইসিপি জানায়, ব্যবসায়ী আরিফ নাকভি, ৩৪ জন বিদেশী নাগরিক ও ৩৫১টি বিদেশি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ২১ লাখ ২১ হাজার ৫০০ ডলার অনুদান নিয়েছে পিটিআই। এছাড়াও পিটিআইকে তাদের অর্থ কেনো জব্দ করা হবে না, সে সংক্রান্ত কারণ দর্শানোর নোটিশও দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

রায়ে বলা হয়, পিটিআই কমিশনের কাছে তাদের ৮টি অ্যাকাউন্ট থাকার কথা জানালেও, জ্যেষ্ঠ নেতাদের হাতে পরিচালিত আরও তিনটি এবং তাদের স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতারা পরিচালিত ১৩টি অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথাও তারা অস্বীকার করেছিলো। অন্যদিকে দলটির চেয়ারম্যান ইমরান খান টানা ৫ বছর যে ফর্ম-আই জমা দিয়েছিলেন তাতেও অনিয়ম পাওয়ার কথা জানিয়েছে ইসিপি।

রায়ের পর পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান এখনো কোনো মন্তব্য না করলেও, পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী বলেছেন, আমরা এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করবো। তিনি অভিযোগ করেন, বেশিরভাগ অর্থই এসেছে বিদেশে থাকা পাকিস্তানিদের কাছ থেকে যা বেআইনি নয়।

এদিকে রায়ের পর মামলার বাদি আকবর এস বাবর পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান পদ থেকে ইমরানের পদত্যাগ দাবি করেছেন। অন্যদিকে পিএমএল-এনের জ্যেষ্ঠ নেতা শহীদ খাকান আব্বাসি জানিয়েছেন, ইসিপির রায়ের পর সরকার এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

সূত্র: ডন নিউজ