• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২, ০১:১৮ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২২, ০৭:১৮ পিএম

মায়ের শেষ বিদায়ে ছেলের চোখে জল

মায়ের শেষ বিদায়ে ছেলের চোখে জল
সংগৃহীত ছবি

প্রয়াত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার, রাষ্ট্রপ্রধানসহ দুই হাজার আমন্ত্রিত অতিথি। এর বাইরেও অন্তিম যাত্রায় রানিকে বিদায় জানাতে রাস্তার দুই পাশে উপস্থিত ছিলেন লাখ লাখ মানুষ। 

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় রানিকে চিরবিদায় জানানো হয়। এ বিদায় অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ব্রিটেনের পুরো রাজপরিবার একত্র হয়েছিল। প্রয়াত রানির সব স্বজনকেই দেখা গেছে। অনেকেই ছিলেন আবেগপ্রবণ। কিন্তু হৃদয় ছুঁয়ে গেছে মাকে হারানো এক পুত্রের চোখের জল, যিনি সদ্য রাজা হয়েছেন। অনেকটা জনসমক্ষেই আবেগপ্রবণ হয়ে ওঠেন রাজা তৃতীয় চার্লস।

দুই পাশে ব্রিটেনের পতাকা; সারি হয়ে দাঁড়ানো রাজকীয় নৌবাহিনীর সদস্যরা। রানিকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আরও কত আয়োজন। তার কফিনের ওপর বিছানো ফুল; একটি মুকুট। লন্ডনের বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে শুরু হয় তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার যাত্রা। গন্তব্য ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবে। উপস্থিত সবার মুখে বিষাদের ছাপ। রীতি অনুযায়ী সামরিক পোশাক পরে উপস্থিত ছিলেন রাজা তৃতীয় চার্লস। পাশে দেখা গেছে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মেয়ে প্রিন্সেস অ্যানিকেও। তিনি বিমর্ষ রাজার দিকে বারবার ভারাক্রান্ত মনে তাকাচ্ছিলেন।

কফিন ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে নেয়ার পর সেখানেও বেশ কিছু আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। একদিন সেখানেই তিনি প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। ওয়েস্টমিনস্টারে রানির কফিন রেখে ব্রিটেনের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হচ্ছিল। অনেকেই সুর মেলাচ্ছিলেন। কিন্তু বাকরুদ্ধ দেখা গেছে রাজা চার্লসকে। রানির শবদেহ উইন্ডসর ক্যাসলে প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে সমাহিত করা হবে।

শবযাত্রায় ডিউক অব ওয়েলস প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী ক্যাট মিডলটন এবং ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান মরকেলের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। দৃষ্টি কেড়েছে প্রিন্স উইলিয়ামের দুই সন্তান প্রিন্স জর্জ ও প্রিন্সেস শার্লটের উপস্থিতিও।

জাগরণ/আন্তর্জাতিক/এসএসকে