• ঢাকা
  • রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২১, ০৭:৩১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৯, ২০২১, ০৮:২৭ পিএম

দু-হাজার বিষ (!)

দু-হাজার বিষ (!)

গলার কাঁটা হয়ে বিঁধেছিলে তুমি
অহল্যা-পাথর হয়ে আমি
এবার যাও
একটুখানি মুক্তির রোদে নামি।

কী এক অচিকিৎস্য ক্ষত হয়ে
জ্বলেছ হৃদয়ে !
এতো আয়োজন, প্রতিরোধ 
এমন লৌহবর্মে মোড়া প্রাচীরের বোধ
তবুও, ঢেলেছ বিষ—  অনিরুদ্ধ নাগ
শীতের পাতার মতো ঝরিয়েছ প্রাণ
শুকিয়ে ফেলেছ এই চোখ
এবার যাও;
খোলা হাওয়ায়
এই নিঃশ্বাসটুকু আমাদের হোক।

চায়ের আড্ডায়
বিদ্যাপীঠের বারান্দায়
বন্ধুর গলা জড়িয়ে ধরে বলি—
এখনও রয়েছি যদি বেঁচে
বন্ধু আয়, প্রাণখুলে হাসি
সবুজ ঘাসে একটা বিকেল বসে
সন্ধ্যামাখা জীবনটাকে একটু ভালোবাসি।

আরও একবার সমস্বরে গেয়ে গাই— 
‘আছে দুঃখ, আছে মৃত্যু, বিরহদহন লাগে
তবুও শান্তি, তবু আনন্দ, তবু অনন্ত জাগে’

কেন না, মরণ যতই গরল বিলিয়ে যাক
জীবনই তো অমৃত বিলাবে আগে।