• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৩, ২০২১, ০৪:০০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২৩, ২০২১, ০৪:০০ পিএম

একাকী নিষাদ

একাকী নিষাদ

তোমাকে দেখার তৃষ্ণায়
আক্রান্ত আজ অজানা অসুখে,
আত্মার ঘ্রাণ শুকে পড়ে থাকি বেমালুম বিবশ
সুন্দরের পরাকাষ্ঠায় অপরূপ গম্বুজে আঁকি
সভ্যতার আদিম ক্ষুধা, প্রেম, মানবিকতা।
অনির্বচনীয় সুখের ফোয়ারায় লিখি মন্দাক্রান্ত কবিতা।

মহাকাল পেরিয়ে যায় অভাবনীয় নির্ভারে
নিমেষের প্রশ্রয়ে হেঁটে যাই আদিগন্ত বিস্তীর্ণ প্রান্তর,
ভাবালুতায় আচ্ছন্ন হয়ে
বদলে যায় মাথার ওপরে আকাশের রঙ ও আয়তন
কর্কটক্রান্তি রেখায় নামে পৃথিবীর অগণিত রাত-দিন;
বয়সী বটের শেকড় বিছিয়ে থাকে বনপোড়া হরিণীর মায়া
নিয়মহীনের দুর্নিবার টানে ভাঙে নিয়মের যাঁতাকল।

ভেসে যায় পরিপাটি সংসার
পাট ভাঙা শাড়ির ভাঁজ, কাজলের গাঢ় টান
ভালোবাসার নিকোনো উঠোন,
অমরত্বের দেয়ালে ভাঙে পরাভব
স্মৃতির পলেস্তারা,
উড়ে যায় গন্ধহীন নিজস্ব আতর,
ধসে পড়ে আজন্ম বৈভব!
অতঃপর, অক্ষাংশ-দ্রাঘিমায়
নিষণ্ণ গহীনে যেতে যেতে অনুভব করি
অজানিত সে পথ, একাগ্র-একাকী নিষাদ।