• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৭, ২০১৯, ০১:৪০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৭, ২০১৯, ০৭:৪২ পিএম

সাগর-রুনি, ত্বকী, তনু ও মিতু হত্যা মামলা

অগ্রগতি জানতে হাইকোর্টে রিট

জাগরণ প্রতিবেদক
অগ্রগতি জানতে হাইকোর্টে রিট
হাইকোর্ট


সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি, নারায়ণগঞ্জের ত্বকী, কুমিল্লার সোহাগী জাহান তনু এবং সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার অগ্রগতি আদালতকে জানানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে একটি রিট করা হয়েছে।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী  ইউনুছ আলী আকন্দ হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন। রিটে স্বরাষ্ট্র  সচিব, আইন  সচিব, পুলিশের আইজি ও সোনাগাজীর ওসিসহ মোট পাঁচজনকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির হত্যা মামলায় বিচার বিভাগীয় অনুসন্ধানের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। এছাড়া রিটে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে নুসরাত হত্যা মামলার দ্রুত বিচার নিশ্চিত করা, তার পরিবারকে প্রয়োজনীয় ক্ষতিপূরণ দেওয়া এবং মামলাটি র‌্যাবের মাধ্যমে তদন্ত করতে নির্দেশনা চাওয়া হয়।

গণমাধ্যমকে রিটকাারি বলেন, ‌বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হবে।

নুসরাত জাহান রাফি সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিমের পরীক্ষার্থী ছিলেন। ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে এর আগেও ওই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ওঠে। নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে নুসরাতের পরিবারকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। ৬ এপ্রিল (শনিবার) সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথমপত্রের পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে যান নুসরাত। এ সময় তাকে কৌশলে একটি বহুতল ভবনে ডেকে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। সেখানে তার গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন দেওয়া হয়। বুধবার (১০ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টায় ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাত মারা যান। 

এমএ/এসএমএম

Space for Advertisement