• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০৯:০৮ এএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ১৪, ২০১৯, ০৯:০৮ এএম

বরগুনার রিফাত হত্যার চার্জশিট দাখিল হচ্ছে আজ

জাগরণ প্রতিবেদক
বরগুনার রিফাত হত্যার চার্জশিট দাখিল হচ্ছে আজ


বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার চার্জশিট আজ বুধবার আদালতে দাখিল হচ্ছে। আদালতের পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী আজ রিফাত হত্যার মামলায় পুলিশের প্রতিবেদন দাখিলের কথা রয়েছে। এ হত্যা মামলায় ১৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া ৪ জন আসামি পলাতক রয়েছে। সব মিলিয়ে রিফাত হত্যা মামলায় ১৫ জনকে অভিযুক্ত করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। 

তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেছেন, রিফাত হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ৪ আসামি  গ্রেপ্তার না হলেও মামলার চার্জশিট দাখিল করার জন্য পুলিশের সকল প্রস্তুতি রয়েছে। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতার আসামিরা হচ্ছে- রিফাত ফরাজী, রিশান ফরাজী, চন্দন সরকার, রাব্বি আকন, হাসান, অলি, টিকটক হৃদয়, সাগর, কামরুল ইসলাম সাইমুন, আরিয়ান শ্রাবণ, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, তানভীর, নাজমুল হাসান, রাতুল সিকদার ও আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। এ মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মুসা বন্ড, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রায়হান ও রিফাত হাওলাদারকে এখনো পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। প্রধান আসামি নয়ন বন্ড গত ২ জুলাই পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল দশটায় বরগুনার জ্যেষ্ঠ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে আসামিদের হাজির করার কথা রয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক হুমায়ুন কবির জানান, তিনি প্রতিবেদন তৈরিতে দিনরাত কাজ করছেন। তবে আজই এ মামলার প্রতিবেদন দাখিল করবেন কিনা, সুনির্দিষ্টভাবে তিনি সে বিষয়টি নিশ্চিত করেনি। 

এ বিষয়ে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহাবুবুল বারী আসলাম জানিয়েছেন, গত ৩০ জুলাই তদন্তকারী কর্মকর্তার প্রতিবেদন দাখিলের কথা ছিল। ওই তারিখে তিনি প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি। তবে আজ বুধবার তিনি প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেন। রিফাত হত্যার সাথে জড়িত থাকা আসামিদের নাম উল্লেখ করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল এবং বিচারক তা গ্রহণ করলে সেটিই চার্জশিট হিসেবে গণ্য হবে।

এ মামলার প্রধান সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গত ১৬ জুলাই রাতে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরেরদিন তাকে ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। তার দুদিন পরে মিন্নিকে আদালতে হাজির করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। গত ৩১ জুলাই সেই স্বীকারোক্তি প্রত্যাহারের জন্য মিন্নি কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বরগুনার জ্যেষ্ঠ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে আবেদন করেন। বিচারক তার আবেদন গ্রহণ করে নথিভুক্ত করেছেন।

এইচএম/আরআই

আরও পড়ুন

Islami Bank