• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল, ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০১৯, ১০:৩৭ এএম
সর্বশেষ আপডেট : আগস্ট ২৮, ২০১৯, ১১:০১ এএম

বাস দুর্ঘটনা

একটি পা কেটে ফেলতে হলো কৃষ্ণা রায়ের

জাগরণ প্রতিবেদক
একটি পা কেটে ফেলতে হলো কৃষ্ণা রায়ের
হাসপাতালের বিছানায় কৃষ্ণা রায় -ছবি : জাগরণ

‘কৃষ্ণা রায়ের বাম পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলতে হয়েছে। মাথায় ছোট দুটি সেলাই করতে হয়েছে’ 

একটি দুর্ঘটনা, সারা জীবনের কান্না। রাজধানীর অধিকাংশ যানবাহন এবং বিভিন্ন লেখা আছে কথাগুলো। সে লিখনের সূত্র ধরে বুধবার (২৮ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বাংলামোটরের সিরামিক ব্যবসায়ী শাহেদ বলেন, ‘‘ফুটপাতে দাঁড়িয়ে থেকেও রেহাই পাওয়া যাচ্ছে না। বেপরোয়া বাস উঠে যাচ্ছে ফুটপাতে। আর প্রাণ হারাতে হচ্ছে নিরীহ পথচারীকে। পথ চলাচলে নিরাপত্তা চাবো কার কাছে ?

মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর বাংলামোটরে কৃষ্ণা রায়ের এক পা পিষে দেয় ট্রাস্ট পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস। পরে সে পাটি কেটে ফেলতে হয়েছে। 

কৃষ্ণা রায় (৫২) বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) সহকারী ব্যবস্থাপক। 

বিআইডব্লিউটিসির প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা খন্দকার মাসুম হাসান জানান, কৃষ্ণা রায়ের বাম পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলতে হয়েছে। মাথায় ছোট দুটি সেলাই করতে হয়েছে। 

বিআইডব্লিউটিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, দুপুরে অফিসের কাজে পুরান ঢাকায় যাওয়ার জন্য বাংলামোটরে বিআইডব্লিটিসির প্রধান কার্যালয় থেকে বের হন কৃষ্ণা রায়। এ সময় কারওয়ান বাজার থেকে শাহবাগগামী ট্রাস্ট পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব ১১–৯১৪৫) সড়ক থেকে ফুটপাতে উঠে তাকে ধাক্কা দিলে তিনি মাটিতে পড়ে যান। এ সময় বাসের একটা চাকা তার বাম পায়ের ওপর উঠে যায়।

ট্রাফিক সদস্য মো. রফিকের বরাত দিয়ে হাতিরঝিল থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) খায়রুল আলম জানান, ঘটনার পর পরেই গাড়িটি রেখে চালক-হেলপার পালিয়ে গেছে। বাসটি জব্দ করা হয়েছে। 

এইচএম/এসএমএম

আরও পড়ুন